June 17, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

দ্রুত গ্যাসের উৎপাদন বাড়াতে ব্যয় বাড়ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক : দ্রুত গ্যাসের উৎপাদন বাড়াতে ১ কোটি ৭০ লাখ (১৭ মিলিয়ন) ডলার ব্যয় বাড়ছে। সচিবালয়ে বুধবার ‘সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি’র বৈঠকে রাশিয়ান প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে এ সংক্রান্ত ইতোপূর্বে স্বাক্ষরিত একটি চুক্তিমূল্যের ব্যয় বৃদ্ধির প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত দেশের বাইরে থাকায় শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোস্তাফিজুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, ক্রয় কমিটির বৈঠকে সাতটি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে গ্যাসের উৎপাদন বাড়ানোর লক্ষ্যে ফাস্টট্রাক কর্মসূচির আওতায় পেট্রোবাংলার অঙ্গপ্রতিষ্ঠান ‘বাংলাদেশ গ্যাস ফিল্ড কোম্পানি লিমিটেড’ ও ‘সিলেট গ্যাস ফিল্ড লিমিটেড’-এর সঙ্গে রাশিয়ান প্রতিষ্ঠান ‘গেজপ্রম ইন্টারন্যাশনাল ইনভেস্টমেন্ট বিভি’র ইতোপূর্বে স্বাক্ষরিত চুক্তিমূল্য থেকে ১ কোটি ৭০ লাখ (১৭ মিলিয়ন) ডলার বৃদ্ধির একটি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। রাশিয়ান প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে এর আগে যে চুক্তি হয়েছিল এর মূল্য ছিল ১০ কোটি (১০০ মিলিয়ন) ডলার। এখন এটা বেড়ে ১১৭ মিলিয়ন ডলার হচ্ছে।

অতিরিক্ত সচিব বলেন, “বৈঠকে জ্বালানী ও খনিজসম্পদ বিভাগের আরেকটি প্রস্তাব ছিল। সেটা হচ্ছে- জামালগঞ্জ কয়লাখনি থেকে কয়লাভিত্তিক মিথেন গ্যাস উত্তোলনের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে পরামর্শক নিয়োগ। এখানে পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছে ভারতীয় প্রতিষ্ঠান ‘মাইনিং এ্যাসোসিয়েশন প্রাইভেট লিমিটেড’। এতে ব্যয় হবে ১৩ কোটি ১৩ লাখ টাকা।”

মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, “বৈঠকে রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে বিএডিসির মাধ্যমে বেলারুশ ও রাশিয়া থেকে ১ লাখ ৮০ হাজার মেট্রিক টন করে ৩ লাখ ৬০ হাজার মেট্রিক টন এমওপি সার আমদানির দুটি প্রস্তাব ছিল। উভয় ক্ষেত্রেই প্রতি মেট্রিক টন ৪০০ ডলার হিসাবে সার আমদানিতে মোট ব্যয় হবে ১ হাজার ১৩০ কোটি টাকা। যে দুটি কোম্পানি সার সরবরাহ করবে সেই কোম্পানি দুটি হল- ‘বেলারুশিয়ান পটাশ কোম্পানি’ ও রাশিয়ার ‘প্রডিনটোর্গ’।”

অতিরিক্ত সচিব বলেন, “হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের আধুনিকায়নে নিয়োগকৃত পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সংশোধিত চুক্তিমূল্যের কার্যোত্তর অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় হবে ২৪ কোটি ৬৭ লাখ টাকা। ডেনমার্ক সরকারের অর্থায়নে এ কাজটি করবে ডেনমার্কের প্রতিষ্ঠান ‘র‌্যামবোল্ট ইন্টারন্যাশনাল’।”

তিনি বলেন, বৈঠকে ‘চট্টগ্রাম পানি সরবরাহ উন্নয়ন ও স্যানিটেশন’ প্রকল্পের আওতাধীন দুটি প্রস্তাব ছিল। এর মধ্যে সঞ্চালন ও অতিরিক্ত বিতরণ পাইপলাইন নির্মাণের (প্যাকেজ ডব্লিউ-৪) কাজটি পেয়েছে চীনা প্রতিষ্ঠান ‘পেট্রো পাইপলাইন’। এতে ব্যয় হবে ৩০৫ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। একই প্রকল্পের আওতায় বিতরণ পাইপলাইন নির্মাণকাজের (প্যাকেজ ডব্লিউ-৮) ঠিকাদার নিয়োগ পেয়েছে চীনা প্রতিষ্ঠান ‘হুবেই ইন্ডাস্ট্রিয়াল কনস্ট্রাকশন’। এতে ব্যয় হবে ৩১০ কোটি ৮৪ লাখ টাকা।

মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ক্রয় কমিটির বৈঠকের আগে ‘অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি’র বৈঠকে পাঁচটি প্রস্তাব নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়। এ বৈঠকেও সভাপতিত্ব করেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।

বৈঠকে অনুমোদন দেওয়া প্রস্তাবের মধ্যে রয়েছে- পিপিপি অফিসের মাধ্যমে ‘জামালপুর অর্থনৈতিক অঞ্চল’ ও ‘সিরাজগঞ্জ অর্থনৈতিক অঞ্চল’ স্থাপনে সম্ভাব্যতা যাচাই, পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্প থেকে ডিপোজিট ওয়ার্ক হিসেবে বিআইডব্লিউটিএ-কে প্রদানকৃত ‘শিমুলিয়া এলাকায় জরুরী ভিত্তিতে প্রস্তাবিত ফেরিঘাটের সংযোগ সড়ক নির্মাণ’ কাজে বাংলাদেশকে নিয়োজিত করে সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে বাস্তবায়নের প্রস্তাব, রাশিয়া ও সৌদি আরব থেকে রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে চুক্তির মাধ্যমে ‘ডাই-এ্যামেনিয়াম ফসফেট’ (ডিএপি) সার আমদানির প্রস্তাব অনুমোদন প্রভৃতি।