October 23, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

সালাহ উদ্দিনকে ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি খালেদার

নিজস্ব প্রতিবেদক : দলের নিখোঁজ যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমদকে ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। আজ রোববার এক বিবৃতিতে তিনি এই দাবি জানান।

বিবৃতিতে খালেদা জিয়া বলেন, ‘সালাহ উদ্দিন বিএনপির মতো একটি বৃহত্তম রাজনৈতিক দলের অন্যতম যুগ্ম মহাসচিব ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী। তাঁর মতো একজন গুরুত্বপূর্ণ নাগরিককে দীর্ঘদিন গায়েব করে রেখে যদি সরকার ও রাষ্ট্রীয় প্রশাসন নির্বিকার থাকতে পারে তাহলে সাধারণ নাগরিকদের নিরাপত্তা কোথায়? দেশে আইন ও প্রাতিষ্ঠানিকতা কি বিলুপ্ত হয়ে গিয়েছে? কাউকে কি কখনো কোনো কিছুর দায় নিতে বা জবাবদিহি করতে হবে না? ’

বিএনপির আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপনের সই করা বিবৃতিতে খালেদা জিয়া আরও বলেন, ‘আমি গভীর উদ্বেগের সঙ্গে উল্লেখ করছি যে, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির অন্যতম শীর্ষস্থানীয় নেতা সালাহ উদ্দিন আহমেদকে রাজধানীর উত্তরা এলাকার একটি বাসা থেকে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার লোকেরা ধরে নিয়ে যাবার পর দুই মাস পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত তার কোন হদিস পাওয়া যাচ্ছে না। শেখ হাসিনার লাগাতার দুই আমলে বিএনপির অন্যতম সাংগঠনিক সম্পাদক, সাবেক এমপি ইলিয়াস আলী, ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের সাবেক কাউন্সিলর, বিএনপি নেতা চৌধুরী আলম, সাবেক সংসদ সদস্য, লাকসাম বিএনপি নেতা সাইফুল ইসলাম হিরু ও হুমায়ুন কবির পারভেজ এবং জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আনিসুর রহমান তালুকদার খোকন ও সিলেটের ছাত্রনেতা ইফতেখার আহমদ দিদারসহ বিরোধী দলের বহু নেতা-কর্মীকে বলপূর্বক গায়েব করে ফেলা হয়েছে। আইন প্রয়োগকারী সংস্থার লোকজন তাদের আটক করে নিয়ে যাওয়ার পর থেকে দীর্ঘ দিনেও তাদের আর কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। জানা যায়নি তাদের ভাগ্যে কী ঘটেছে।’

খালেদা জিয়া বলেন, সালাহ উদ্দিনের জন্য তাঁর পরিবারের এবং দলের সবার উৎকণ্ঠা দিন দিন আরও গভীর হচ্ছে। তাঁর স্ত্রী হাসিনা আহমেদ প্রধানমন্ত্রীর কাছে বারবার আবেদন করছেন তাঁর স্বামীকে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী সালাহ উদ্দিনকে নিয়ে নিষ্ঠুর কটাক্ষ করলেও তাঁকে ফিরিয়ে দেওয়ার কোনো উদ্যোগ নেননি। সালাহ উদ্দিনের স্ত্রী থানায় মামলা করতে গেলেও মামলা নেওয়া হয়নি। যদিও পুলিশ নিজে থেকে একটা জিডি করেছে, কিন্তু উচ্চ আদালতের নির্দেশনা সত্ত্বেও তাঁর সন্ধান আজও দেওয়া হয়নি।