September 19, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

বার্গম্যানের সাজার বিরুদ্ধে বিবৃতিদাতাদের শুনানি বৃহস্পতিবার

আদালত প্রতিবেদক : সাংবাদিক ডেভিড বার্গম্যানের সাজার বিষয়ে বিবৃতি দেওয়া ২৩ নাগরিকের আদালত অবমাননা বিষয়ে শুনানি অাগামী বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হবে।

সোমবার এ বিষয়ে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২-এ শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। এতে রাষ্ট্রপক্ষের হয়ে শুনানিতে অংশ নেন ব্যারিস্টার তুরিন অাফরোজ। তিনি ওই ২৩ নাগরিকের দেওয়া বিবৃতি থেকে বিভিন্ন অংশ উদ্ধৃত করে বলেন, এই বিবৃতির বিষয় কোনও ভাবেই জনস্বার্থ সংশ্লিষ্ট নয়।

অন্যদিকে বিবৃতিদাতাদের পক্ষে শুনানির জন্য অাদালতে সময় চান ব্যারিস্টার অাখতার ইমাম। পরে ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক আগামী বৃহস্পতিবার পরবর্তী শুনানির তারিখ নির্ধারণ করেন।

আলোচিত এই ২৩ নাগরিক হলেন- আনুশেহ আনাদিল, আনু মুহাম্মদ, ফরিদা আক্তার, শবনম নাদিয়া, শহিদুল আলম, রেহনুমা আহমেদ, জাফরুল্লাহ চৌধুরী, লুবনা মরিয়ম, নাসরিন সিরাজ অ্যানি, শিরিন হক, মুক্তাশ্রি চাকমা সাথী, জরিনা নাহার কবির, দেলোয়ার হোসেন, তীব্র আলী, সিআর আবরার, মাহমুদ রহমান, আলী আহমেদ জিয়া উদ্দিন, হানা শামস আহমেদ, বীনা ডি কস্টা, মাসুদ খান, জিয়াউর রহমান, আফসান চৌধুরী, লিসা গাজি।

গত ২ ডিসেম্বর আদালত অবমাননার দায়ে ডেভিড বার্গম্যানকে আদালত চলাকালীন কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা করে ট্রাইব্যুনাল। এ সাজায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বিবৃতি প্রদান করেন ৫০ বিশিষ্ট নাগরিক। গত ২০ ডিসেম্বর দৈনিক প্রথম আলোয় ‘বার্গম্যানের সাজায় ৫০ নাগরিকের উদ্বেগ’ শীর্ষক প্রতিবেদন ছাপা হয়। পরে মানবাধিকারকর্মী খুশী কবির বিবৃতি থেকে তার নাম প্রত্যাহার করেন।

এরপর ২৮ ডিসেম্বর ট্রাইব্যুনাল-২ এক আদেশে ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রথম আলোকে ওই বিবৃতির অনুলিপি দাখিলের আদেশ দেন। বিবৃতির অনুলিপি জমা দিলে ট্রাইব্যুনাল পরবর্তী আদেশে বিবৃতিদাতাদের ঠিকানা চান। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী শাহদীন মালিক ও মানবাধিকারকর্মী হানা শামস আহমেদের কাছে এসব ঠিকানা চাওয়া হয়।

আদেশ অনুযায়ী শাহদীন মালিক ও হানা শামস আহমেদ বিবৃতিদাতাদের ঠিকানা ট্রাইব্যুনালে পেশ করেন। বিবৃতিদাতা ৪৯ জনের কাছে তাদের দেওয়া বিবৃতির ব্যাখ্যা চেয়ে আদেশ দেন ট্রাইব্যুনাল-২।

এর আগে ডেভিড বার্গম্যানকে করা ট্রাইব্যুনালের জরিমানার রায়ের বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়ে বিবৃতি দেওয়া ৪৯ বিশিষ্ট ব্যক্তির মধ্যে তিন দফায় ২৫ জনকে অব্যাহতি দিয়েছিলেন ট্রাইব্যুনাল। বাকি ২৪ জনের বিষয়ে আদেশের জন্য ১ এপ্রিল দিন ধার্য করা হয়। আজ বুধবার তাদের একজন রেজাউর রহমানের পক্ষে নি:শর্ত ক্ষমা চান ব্যারিস্টার আনিসুর রহমান।

গত ৩ মার্চ ক্ষমা পাওয়া ১০ বিশিষ্ট নাগরিক হলেন- সেউতি সবুর, ড. ফোস্টিনা পারেরা, মহিউদ্দিন আহমেদ, মো. নুর খান লিটন, ড. ফিরদৌস আজিম, ড. আলী রিয়াজ, ড. পারভিন হাসান, ড. দীনা এম সিদ্দিকী, ড. সামিয়া হক ও তসলিম সারাহ শাহাবুদ্দিন।

গত ২৩ ফেব্রুয়ারি ক্ষমা পাওয়া ১৪ বিশিষ্ট নাগরিক হলেন ড. শাহদীন মালিক, হাফিজ উদ্দিন খান, বদিউল আলম আলম মজুমদার, রাশেদা কে চৌধুরী, ইমতিয়াজ আহমেদ, আমেনা মহসীন, সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান, ড. আসিফ নজরুল, নায়লা জামান খান, শাহনাজ হুদা, জাকির হোসেন, অরুপ রাহী, শাহীন ‍আখতার ও ইলিরা দেওয়ান।