October 24, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

রামপাল প্রকল্পের অগ্রগতিতে সন্তুষ্ট স্টিয়ারিং কমিটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : রামপালে বাংলাদেশ-ভারত ফ্রেন্ডশিপ পাওয়ার কোম্পানি কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন ১৩২০ মেগাওয়াট মৈত্রী সুপার থারমাল প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি সন্তুষ্ট স্টিয়ারিং কমিটি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকায় বিদ্যুৎ খাতে সহযোগিতা সংক্রান্ত বাংলাদেশ-ভারত যৌথ স্টিয়ারিং কমিটির নবম সভায় এ সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। সভায় বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন বিদ্যুৎ সচিব মনোয়ার ইসলাম এবং ভারতের পক্ষে নেতৃত্ব দেন ভারতের বিদ্যুৎ সচিব পিকে সিনহা।স্টিয়ারিং কমিটি রামপালের ১৩২০ মেগাওয়াট মৈত্রী সুপার থারমাল প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি কাজের অগ্রগতিতে সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং বিদ্যুৎ খাতে বাংলাদেশ-ভারত সহযোগিতা বৃদ্ধি পাবে বলে আশা প্রকাশ করেন। এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে বিদ্যুৎ খাতে সহযোগিতা সংক্রান্ত বাংলাদেশ-ভারত জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের নবম সভাও অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে বহরমপুর (ভারত)-ভেড়ামারা (বাংলাদেশ) গ্রিড ইন্টার-কানেকশনের ক্ষমতা বৃদ্ধির মাধ্যমে ভারত থেকে আরো ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানী, ভারতের ত্রিপুরা রাজ্য থেকে ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি, বহরমপুর-ভেড়ামারা লাইনের মাধ্যমে ভারতের পাওয়ার মার্কেট থেকে আরো ৩০-৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানী, ভারতের উত্তর ও উত্তর-পূর্বাঞ্চল এবং বাংলাদেশের মধ্যে আন্তঃসংযোগ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন মাল্টি টার্মিনাল এইচভিডিসি বাই-পোল সঞ্চালন লাইন নির্মাণ সংক্রান্ত প্রস্তাবনার অগ্রগতি পর্যালোচনা করা হয়।

এসময় নেপাল ও ভুটান থেকে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ আমদানি ও ভারতের বিভিন্ন কোম্পানির বাংলাদেশের বিদ্যুৎ খাতে বিনিয়োগের আগ্রহের বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

যৌথ স্টিয়ারিং কমিটি আশা করছে ডিসেম্বর, ২০১৫ সালের মধ্যে পালাটানা থেকে ১০০ মেগাওয়াট এবং ডিসেম্বর, ২০১৭ সালের মধ্যে আরও ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ ভারত থেকে বাংলাদেশে আসবে।

এর আগে গত বছর অক্টোবরে দিল্লিতে বিদ্যুৎ খাত সংক্রান্ত বাংলাদেশ-ভারত জয়েন্ট স্টিয়ারিং কমিটি ও জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের অষ্টম সভা অনুষ্ঠিত হয়।