October 22, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

ঢাকা শহরের গিনিপিগ দের জন্য নতুন আইন : আসিফ

ডেস্ক প্রতিবেদন : ফেসবুকে স্ট্যাটাসে রাজধানী ঢাকার যানজট নিয়ে লিখেছেন জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী আসিফ আকবর।

তিনি লেখেন, ডেডলাইন ১৭/০৫/১৫ । রবিবার বিকেলে মগবাজারের বাসা থেকে বের হয়ে হাতির ঝিল অফিসে যাচ্ছি। চারদিকে গাড়ীর চাপ। এ মোড়ে ও মোড়ে ঘুরছি রাডারলেস অভিযাত্রীর মত। একজন ভদ্রলোক ট্রাফিক সার্জেন্ট দূর থেকে আমাকে দেখে এগিয়ে এসে একটা ভালো বুদ্ধি দিলেন। আমি তাকে জিজ্ঞেস করলাম জ্যামের কারন কি ? তিনি বললেন-আজ সিগন্যাল বাতি অনুযায়ী গাড়ী চলবে।

ঢাকা শহরের গিনিপিগ দের জন্য নতুন আইন। ফলাফল উপভোগও করেছি ঘণ্টা দেড়েক এলোপাথারি ঘুরে। অর্থ্যাৎ এতো বছর সিগন্যাল বাতিগুলো ছিলো শো পিস। হঠাৎ করে ক্ষমতা পেয়েই যানজটে নতুন মাত্রা যোগ করল। অবাক হওয়ার মত সাধারন ব্যাপার। আমাদের ট্রাফিক সার্জেণ্ট এবং ট্রাফিক পুলিশদের প্রতি বিনম্র কৃতজ্ঞতা বোধ জন্ম নিলো। অটো সিগন্যাল পরাজিত তাদের কাছে। এটা একটা বিশ্বরেকর্ড ।

রোদ, ঝড়, বৃষ্টি হর্ন,ধুলোবালি উপেক্ষা করে তারা ডিউটি করে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত। তথাকথিত ভি আই পি ,আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর গাড়ী, বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস গুলো অবাধে চলছে রং সাইড দিয়ে বুক চিতিয়ে। ট্রাফিক পুলিশ তাদেরকেও ম্যানেজ করছে ডিউটি হিসেবে মাথায় নিয়ে। অন্যান্য অঘোষিত রক্তচক্ষুর প্যাড়া তো আছেই। আমরা আম গিনিপিগ বসেই থাকি ঘন্টার পর ঘন্টা। পাবলিক বাসের যাত্রীগুলো গরমে, ঘামে জ্যামে অসহায় তিতিবিরক্ত ।

ট্রাফিক পুলিশের অন্য ব্যাপারে একটু বদনাম থাকলেও তারা সবচেয়ে মহৎ কাজটি করে যাচ্ছে নানা প্রতিকূলতা সহ্য করে। তাদের বেতন বাড়ানো উচিত অন্তত চারগুন। আসুন আমরা লেখাটি পড়া শেষ হওয়ার সাথে সাথে তাদের জন্য হাততালি দিয়ে উঠি। তাদের সম্মানিত করি ।