June 25, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

উদ্বোধন হলেও পর্যটন মেলা আজ বন্ধ থাকছে

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশ ট্যুরিজম ডেভেলপমেন্ট বোর্ডের (বিএফটিডি) ও ট্যুর অপারেটস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (টোয়াব) আয়োজনে বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলার উদ্বোধন করেন বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।

তবে শুরুর দিনই বন্ধ রাখা হলো ‘আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলা ২০১৫’। আয়োজনস্থলে বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর আগমনের কারণে মেলা সর্বসাধারণরে জন্য বন্ধ রাখা হবে বলে জানা গেছে। 

উদ্বোধনের সময়ে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন সচিব খোরশেদ আলম চৌধুরী ও ত্রিপুরার পর্যটনমন্ত্রী রতন ভৌমিক।

তবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষেই অনুষ্ঠানস্থলে এক জরুরি বার্তা আসে। সে বার্তায় জানানো হয়, মেলা আজ (বৃহস্পতিবার) বন্ধ রাখতে হবে। বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখানে আসবেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের দায়িত্বে নিয়োজিত এক কর্মকর্তা বলেন, আজ মেলা হচ্ছে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিকাল ৪টায় এখানে আসবেন।

প্রধানমন্ত্রী কেন আসবেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ২৩ তারিখ এফবিসিসিআই নির্বাচন। এ বিষয়ে এফবিসিসিআই’র সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর মিটিং রয়েছে।

জানা গেছে, আজ মেলা বন্ধ রাখার ফলে আয়োজক ও মেলায় অংশগ্রহণকারীরা কয়েক লাখ টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হতে যাচ্ছে। তিন দিনে মেলায় স্টল বুকিং নিয়েও তারা ১ম দিনে স্টলে বসতে না পারায় হতাশা ব্যক্ত করেছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ট্র্যাবেল অ্যান্ড ট্যুরসের মালিক বলেন, আমাদের তিন দিনের টাকা পরিশোধ করতে হয়েছে। কিন্তু ১ম দিনই স্টলে বসতে পারলাম না। টাকা দিয়ে স্টল নিয়ে স্টলে থাকতে পারব না। এটা হতাশার।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন ফর ট্যুরিজম ডেভেলপমেন্টের (বিএফটিডি) নির্বাহী পরিচালক রেজাউল একরাম বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, ১ বছর ধরে এ মেলার জন্য প্রস্তুতি নিয়ে আসছি। আন্তর্জাতিক অনেক প্রতিষ্ঠান এতে অংশগ্রহণ করছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী বিকেলে আসবেন বলে মেলা পণ্ড হয়ে যাবে!

তিনি বলেন, ভিআইপি হোটেলে প্রধানমন্ত্রী গেলে সেখানে অবস্থানরত কাউকে বের করে দেয়া হয় না। এখানে এক রুমে প্রধানমন্ত্রী বৈঠক করবেন, তাতে পুরো কেন্দ্রের সকলকে বের করে দেয়া হবে, এ সত্যিই বিড়ম্বনা।

রেজাউল বলেন, বিআইসিসিতে তিন দিনে ২৪ লাখ টাকার বেশি পরিশোধ করতে হবে। এ হিসেবে এক দিনে ক্ষতি হবে ৮ লাখ টাকা।

প্রসঙ্গত, এবারের মেলায় বাংলাদেশ ছাড়াও ১৫টি দেশের ৫৫টি এয়ারলাইনস, হোটেল, মোটেল, রিসোর্ট, ট্যুর অপারেটরসহ পর্যটনবিষয়ক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ১৩৫টি স্টল অংশ নিচ্ছে। মেলা উপলক্ষে এসব প্রতিষ্ঠান  হোটেল ও প্যাকেজ বুকিংসহ বিভিন্ন সুযোগ থাকবে। এবারের মেলায় ১৫/২০ মিলিয়ন ডলার আয়ের প্রত্যাশাও করছেন আয়োজকরা।৩ দিনব্যাপী এ মেলা চলবে ২৩ মে পর্যন্ত। মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে।

এবারের মেলায় প্রতিদিন লাকি ড্র অনুষ্ঠিত হবে। এতে বিজয়ীর জন্য বাংলাদেশ বিমানের পক্ষ থেকে দুটি করে টিকেট উপহার হিসেবে থাকবে।

মেলা উপলক্ষে সংবাদকর্মীদের জন্যও রয়েছে পুরস্কারের ঘোষণা। মেলা নিয়ে সবচেয়ে বেশি ও আকর্ষণীয় রিপোর্ট যারা করবেন তাদের জন্য সঙ্গীসহ চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার ভ্রমণের সুযোগ করে দেবে আয়োজকরা।