October 22, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে চাওয়া হচ্ছে টাকা!

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রথমে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়। তারপর স্বয়ং হ্যাকার যোগাযোগ করে অ্যাকাউন্টের মালিকের সাথে এবং অ্যাকাউন্ট ফিরিয়ে দেয়ার পরিবর্তে চাওয়া হয় টাকা!

গত কিছু দিন যাবত এভাবে অনেক ফেসবুক ব্যাবহারকারীর অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছে। অ্যাকাউন্টের মালিকের সাথে ফোনের মাধ্যমে অথবা অ্যাকাউন্টের ওয়ালে হ্যাকার নিজের ফোন নম্বর লিখে দিচ্ছে। আর ফোন দিলেই ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা চাওয়া হচ্ছে। টাকা না পেলে অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দেয়া হচ্ছে, যারা টাকা দেয়নি তাদের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে।

এখন পর্যন্ত এ ধরনের একাধিক ঘটনার ক্ষেত্রে ০১৯১০৩৪০৪১২ সেল নম্বরটি ব্যবহার করছে কথিত ওই হ্যাকার। এছাড়াও টাকা নেয়ার জন্য ব্যবহার করছে ০১৭৮৭৮৮১০৭২ এই বিকাশ নম্বরটি।

এমনি একজন ভুক্তভোগী সাইফুল নিউজবাংলাদেশ.কমকে বুধবার জানান, গত (মঙ্গলবার) রাতে তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি হ্যাক করা হয়। আজ বুধবার সকালে ০১৯১০৩৪০৪১২ নম্বর থেকে ফোন আসে। ফোন থেকে অপরিচিত কণ্ঠ ৬০০ টাকা দাবি করে। অ্যাকাউন্ট উদ্ধারের অনেক চেষ্টা করেও কোনও লাভ হয়নি। শেষ পর্যন্ত কথিত হ্যাকার ৩০০টাকার বিনিময়ে অ্যাকাউন্টটি ফেরত দিতে রাজি হয়। পরে তার দেয়া বিকাশ নম্বরে টাকা পাঠানোর পর ফিরিয়ে দেয়া হয় অ্যাকাউন্টটি।

এদিকে, মঙ্গলবার দুপুরেও এমন আরেকটি ঘটনার কথা শোনা গেছে। কে বা কারা এই কাজটি করছে সেটা এখনো জানা যায়নি। ভুক্তভোগীরা অবশ্য জানিয়েছে, তারা দ্রুত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর শরণাপন্ন হবেন।

এ বিষয়ে সাইবার অপরাধ প্রতিরোধ এবং দমনে চালু হেল্পলাইনে (০১৭৬৬৬৭৮৮৮৮) যোগাযোগ করলে তারা জানান, তারা এ বিষয়টি দেখেন না। একই নামে একাধিক ফেসবুক বা সামাজিক সাইটের অ্যাড্রেস দিয়ে কাউকে হয়রানির ক্ষেত্রে তারা ফেক আইডি বন্ধের ব্যবস্থা নিয়ে থাকে।

এ প্রসঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ সাইট বিষয়ে অভিজ্ঞ আজিজ শাহরিয়ার বলেন, বেশ কিছু ক্ষেত্রে এমন ঘটনা ঘটছে বলে শোনা যাচ্ছে। তবে এটা গুরুতর কিছু নাও হতে পারে। কারণ, মাত্র তিন শ, পাঁচ শ বা এক হাজার টাকার জন্য হ্যাকাররা এ কাজ করবে না। এসব ঘটনার শিকার যারা হচ্ছেন, তাদের ঘনিষ্ঠ বন্ধু-স্বজনরা এতে জড়িত থাকতে পারে। তবে সাইবার ক্রাইমের ক্ষেত্রে নিশ্চিত করে কিছু বলা যায় না। এটা যে কোনও বড় ঘটনার সূত্রপাত বা টেস্ট কেসও হতে পারে। তাই সচেতনতাই এর প্রথম প্রতিরোধ হতে পারে।