June 22, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

বিশ্বকাপের নির্মাণকাজে অভিবাসী শ্রমিকদের সুরক্ষায় কাতার ব্যর্থ

বিদেশ ডেস্ক : আগামী ২০২২ সালে অনুষ্ঠিতব্য ফুটবল বিশ্বকাপ উপলক্ষে নির্মাণকাজে নিয়োজিত অভিবাসী শ্রমিকদের সুরক্ষায় কাতার ব্যর্থ বলে অভিযোগ করেছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। পাশাপাশি,  বিশ্বকাপ সামনে রেখে দেশটির শ্রম আইন সংস্কারের প্রতিশ্রুতিও বাস্তবায়ন করে নি বলে জানায় সংস্থাটি।

উল্লেখ্য, বিশ্বকাপকে সামনে রেখে বর্তমানে মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটিতে ব্যাপক নির্মাণযজ্ঞে প্রায় ১.৫ মিলিয়ন শ্রমিক নিয়োজিত রয়েছেন।

এদিকে কাতার সরকার অ্যামনেস্টির এসব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে। কাতার এক বিবৃতিতে জানায়, গত এক বছরে প্রবাসী শ্রমিকদের অধিকার এবং অবস্থার উন্নতি সাধনে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে। গার্ডিয়ান।

অ্যামনেস্টি এক প্রতিবেদনে জানায়, নয়টি প্রধান সমস্যাকে চিহ্নিত করা হলেও তার মধ্যে মাত্র ৫টি বিষয়ে সীমিত অগ্রগতি হয়েছে। সমস্যাগুলো সমাধানে ১২ মাসের বেধে দেওয়া সময়ও অতিক্রম করেছে বহু পূর্বেই।

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে ব্রিটিশ প্রভাবশালী পত্রিকা গার্ডিয়ানে বিশ্বকাপের নির্মাণকাজে জড়িত অভিবাসী শ্রমিকদের দুর্দশার বিষয়ে এক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। পরবর্তীকালে কাফালা আইন সংস্কারের জন্য কাতারের উপর ব্যাপক চাপ দেয়া হয়। এই আইনের মাধ্যমে নিয়োগকর্তারা শ্রমিকদের বিভিন্ন ক্ষেত্রে বঞ্চিত করার সুযোগ পায়।

তবে নির্মাণস্থলের নিরাপত্তা ব্যবস্থার উন্নতি এবং শ্রমিক শোষণে ক্ষতিগ্রস্তদের বিচারের ক্ষেত্রে সামান্য অগ্রগতি সাধন করতে পেরেছে দেশটি।

অ্যামনেস্টির উপসাগরীয় অভিবাসীদের অধিকার বিষয়ক গবেষক মুস্তফা কাদরি জানান, অভিবাসী শ্রমিকদের সংখ্যা বেড়ে ২.৫ মিলিয়নে দাঁড়িয়েছে। সুতরাং সংস্কারের প্রয়োজনীয়তা আরো জরুরি হয়ে পড়ছে।

কাতার সরকার অ্যামনেস্টির অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে এক বিবৃতিতে জানায়, ২৯৪ শ্রম পরিদর্শক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। চলতি বছর শেষে তা বাড়িয়ে ৪০০ করা হবে। এছাড়া ২ লাখ ৫০ হাজার শ্রমিকের বাসস্থান নির্মাণের কাজ চলছে।

বিশ্বকাপের নির্মাণকাজে নিয়োজিত শ্রমিকদের দুর্দশা লাঘবে কাতারের ব্যর্থতায় ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফাও বেশ চাপের মুখে রয়েছে। রাশিয়া এবং কাতার বিশ্বকাপের বিড নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ তদন্তেই ব্যস্ত ফিফা। এছাড়া কাতার বিশ্বকাপের সময়সূচি নিয়েও তারা উদ্বিগ্ন।

এদিকে, অভিবাসী শ্রমিকদের শিবিরে অনধিকার প্রবেশের অভিযোগে গত সপ্তাহে কাতারে বিবিসির ৪ সাংবাদিককে আটক করা হয়। যদিও মে মাসের শুরুর দিকে বিশ্বকাপের নির্মাণ কাজ দেখার জন্য সরকার তাদের আমন্ত্রণ করে নিয়ে গিয়েছিলো।

কাদরি বলেন, এই ঘটনা থেকে প্রমাণিত হয়, সরকার অভিবাসী শ্রমিকদের দুর্দশা লাঘব করার চেয়ে নিজেদের ইমেজ নিয়েই বেশি চিন্তিত।