September 28, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

দেশি দম্পতিরা দ্রুত মিলনে আগ্রহ হারান?

ডেস্ক প্রতিবেদন : এ দেশের বিবাহিত দম্পতিরা নাকি বিয়ের বছরখানেক পরেই মিলনে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন। এর কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এর জন্য দায়ী শহুরে জীবনযাত্রা।

বিখ্যাত সেক্সোলজিস্ট প্রকাশ কোঠারি বলছেন, অফিসের ও বাড়ির কাজের চাপ, সময় ও ব্যক্তিগত পরিসরের অভাব, যথেচ্ছ ভাজাভুজি খাওয়াদাওয়া, সন্তানের কেরিয়ার নিয়ে অতিরিক্ত ভাবনা ও উচ্চাশা শহুরে দম্পতিদের মধ্যে মিলনের আগ্রহকে গলা টিপে হত্যা করছে। স্বামী-স্ত্রী দু’জনেই এতে হীনমন্যতায় ভুগতে শুরু করছে বিয়ের পরে। দু’পক্ষই ভাবছেন, অপরজন তাঁর প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন বোধহয়। সংসারে শুরু হচ্ছে অশান্তি, জন্ম নিচ্ছে অবিশ্বাসের বাতাবরণ।

মুম্বইয়ের ৩৯ বছরের রাশি(নাম পরিবর্তিত) দুই সন্তানের মা। শেষ কবে স্বামীর সঙ্গে শয্যায় উত্তেজিত হয়েছিল, মনেই করতে পারেন না রাশি। তাঁর বক্তব্য, বোধহয় আমাদের দ্বিতীয় সন্তানের জন্মের আগে শেষবার আমি ও আমার স্বামী মিলিত হয়েছিলাম।সাইকোলজিস্ট সীমা হিনগোরানি বলছেন, আমি প্রত্যেকদিন অন্তত দু’জন করে এমন পুরুষ ও মহিলাকে দেখি যাঁরা চেম্বারে এসে বলেন, মিলনে আগ্রহ হারিয়েছেন। এর ফলে তাঁরা ডিপ্রেশনের শিকার হচ্ছেন। নিজেকে একা বলে মনে করছেন।

কিন্তু এই পরিস্থিতিতে কী করা উচিত?

সমীক্ষা বলছে, যে সমস্ত ভারতীয় বিয়ের পরপর দিনে অন্তত একবার করে পার্টনারের সঙ্গে রতিক্রিয়ায় লিপ্ত হন, দেখা গিয়েছে বিয়ের কয়েকবছর পর অন্তত ৪৬ শতাংশ দম্পতিই মিলনে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সবার আগে দরকার রিল্যাক্সেশন। ফেলে আসা ভালো সময়ের কথা মনে করুন। দরকার স্ট্রেস কমানো। কাজের চাপ থাকবেই। কিন্তু নিজের সঙ্গীর জন্য সময় বার করুন। একসঙ্গে রোম্যান্টিক ডিনারে যাওয়ার চেষ্টা করুন। সবথেকে সরকারি কথা, অফিসের কাজের চাপ নিয়ে বেডরুমে ঢুকবেন না।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পুরুষ ও মহিলা-দুজনেরই উচিত উল্টোদিকের মানুষটির মনের সুপ্ত ইচ্ছাকে জাগিয়ে তোলা।