September 17, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

মোদিকে অভ্যর্থনা জানাবে বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক : ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ মোদির বাংলাদেশ সফরে দুই দেশের মধ্যে তিস্তার পানি চুক্তি, সীমান্ত হত্যাসহ অমীমাংসিত ইস্যুর সমাধান হবে এমন প্রত্যাশা করছে বিএনপি। একইসঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে তার বাংলাদেশ সফরকে স্বাগত জানানো হয়েছে।

নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বুধবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের মুখপাত্রের দায়িত্বে থাকা আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন এ সব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘মোদির বাংলাদেশ সফরে আলিঙ্গন-অভ্যর্থনা দেওয়ার জন্য দেশের মানুষ ও বিএনপি প্রস্তত। আমি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে তাকে স্বাগত জানাই। আশা করি মোদির বাংলাদেশ সফরে অমীমাংসিত ইস্যু সমাধান হবে। বিশেষ করে তিস্তার সমস্যা। সীমান্ত হত্যা আরও কমিয়ে আনা সম্ভব হবে। ইতোমধ্যে স্থলসীমান্ত চুক্তি বিল পাসকে বিএনপি স্বাগত জানিয়েছে।’

বিএনপি ভারত বিরোধী রাজনীতি করেনা

রিপন বলেন, ‘বিএনপি কখনই ভারত বিরোধী রাজনীতি করেনি, ভবিষ্যতেও করবেও না। কোনো দেশের প্রতি বৈরিতা নয়, জনগণের স্বার্থে, বাংলাদেশের স্বার্থে কথা বলে। তিস্তা নিয়ে কথা বললেই ভারত বিরোধিতা হয়ে যায় না।’

বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সস্পর্ক উন্নয়নের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ভারত সরকার বলে আসছে তারা কোনো বিশেষ দলকে গুরুত্ব দিচ্ছে না। তারা বাংলাদেশের মানুষের সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়ে গুরুত্ব দিচ্ছে। সেটার প্রতিফলন হচ্ছে, হবে।’

বিএনপি এই মুখপাত্র বলেন, ‘ভারতে নির্বাচনী গণতন্ত্রের ভাল চর্চা হয়। এত বড় একটি দেশে গণতান্ত্রিক পরিবেশে নিবার্চন হয়। মোদি চাইবেন প্রতিবেশী দেশেও জনগণ সুষ্ঠুভাবে গণতন্ত্রের চর্চা করুক। এছাড়া ইউরোপ, আমেরিকার রাষ্ট্রপ্রধানরা যে দেশে যান তারাও চান সে দেশে গণতান্ত্রের চর্চা হউক। এতে তারা কমফোর্ট ফিল (স্বস্তি অনুভব) করেন।’

মোদির সঙ্গে খালেদা জিয়ার সাক্ষাৎ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এটি মোদির রাষ্ট্রীয় সফর, নিরাপত্তাজনিত কারণে আগে থেকে সফরসূচি ঘোষণা করা হয় না। সুতরাং এ বিষয়ে কিছু বলছি না।’

সাক্ষাত হলে কি কি বিষয়ে আলোচনা হতে পারে জানতে চাইলে রিপন বলেন, ‘ দুই দেশের রাষ্ট্রীয় স্বার্থে এটা আগে থেকেই বলা যাচ্ছে না।’

মোদির বাংলাদেশ সফরে দুই দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও এগিয়ে যাবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।