December 6, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

পাস কমেছে ৪.০৩ শতাংশ, জিপিএ-৫ কমেছে ৩০ হাজার ৩৭৫

নিজস্ব প্রতিবেদক : চলতি বছরের আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি এবং মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের সমমানের পরীক্ষায় গড়ে ৮৭ দশমিক ০৪ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। পূর্ণাঙ্গ জিপিএ পেয়েছে একলাখ ১১ হাজার ৯০১ জন শিক্ষার্থী। গতবছরের তুলনায় এবার পাসের হার কমেছে ৪ দশমিক ০৩ শতাংশ। আর পূর্ণাঙ্গ জিপিএ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে ৩০ হাজার ৩৭৫ জন। এ ফলাফলের জন্য শিক্ষামন্ত্রী অবরোধ-হরতালকে দায়ী করেছেন।

গত বছর ৯১ দশমিক ৩৪ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছিল আর জিপিএ-৫ পেয়েছিল একলাখ ৪২ হাজার ২৭৬ জন।

শনিবার সকাল ১০টায় এ ফলাফল প্রধান মন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরে দুপুর একটায় শিক্ষামন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এবার ১০টি শিক্ষাবোর্ডে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১৪ লাখ ৭৩ হাজার ৫৯৪ জন। উত্তীর্ণ হয়েছে ১২ লাখ ৮২ হাজার ৬১৮ জন।

সাধারণ শিক্ষার আটটি বোর্ডে পরীক্ষার্থী ছিল ১১ লাখ আটট হাজার ৬৮৩ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে নয় লাখ ৬১ হাজার ৪০৫ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৯৩ হাজার ৬৩১ জন।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, “মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে পরীক্ষার্থী ছিল দুই লাখ ৫৪ হাজার ৬২২ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে দুই লাখ ২৯ হাজার ৬৬৬ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১১ হাজার ৩৩৮ জন। কারিগরি শিক্ষাবোর্ডে  একলাখ ১০ হাজার ২৮৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ৯১ হাজার ৪৫৭ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬৯ হাজার ৯৩২ জন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, “বিএনপি-জামায়াতের হরতাল-অবরোধের কারণে আমাদের উত্তীর্ণ কম হয়েছে। পরীক্ষায় সময় নিরাপত্তাহীনতার কারণে এ ফলাফল হয়েছে।”

তিনি জানান, বিদেশে ২৯৯ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ২৯২ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭২ জন।
বেলা দুইটার পরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ফলাফল পাওয়া যাবে বরে জানান তিনি।