September 24, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

মেসি যাদুতে বার্সার দ্বি-মুকুট

ক্রীড়া ডেস্ক : এটাকে বলা হয় কিংস কাপ (কোপা ডেল রে)। সেই কিংস কাপের শিরোপা জয় নির্ধারণ করলেন ‘আরেক কিং’। হ্যাঁ, ঠিকই ধরেছেন- তিনি লিওনেল মেসি। শনিবার কোপা দেল রে ফাইনালে মেসি জাদুতেই ম্রিয়মান হয়েছে অ্যাথলেটিক বিলবাও। রোজারিও প্রতিভার অবিশ্বাস্য নৈপূণ্যেই দ্বি-মুকুট নিশ্চিত হয় বার্সেলোনার। চলতি মৌসুমে লা লিগার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর স্প্যানিশ কাপের শিরোপাও ঘরে তুলল ন্যু ক্যাম্পের অধিবাসীরা। এখন চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতে ট্রেবল জয়ের অপেক্ষা।

এদিন পুরনো চিত্রনাট্যেই এগিয়েছে ন্যু ক্যাম্পের মহারণ। যেমন- মেসির ঝলসে ওঠা, প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারদের বোকা বানানো এবং খেলার অচলাবস্থা ভাঙা। অর্থাৎ, বার্সেলোনার এগিয়ে যাওয়া। তারপরের রেসিপিটা হলো- টানা চারবারের ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের বাকি দুই সাগরেদের জ্বলে ওঠা এবং গোল আদায়। ফলাফলে প্রতিপক্ষ দুরমুশ। আর বার্সার শিরোপা জয়। শনিবারের ন্যু ক্যাম্প ৯৯ হাজার দর্শক ঠিক সেটাই প্রত্যক্ষ করেছে। যখন মেসির জোড়া গোলের পর নেইমারের লক্ষ্যভেদে ৩-১ স্কোরলাইনে জয় পেয়েছে বার্সেলোনা। আর মৌসুমের দ্বিতীয় ট্রফিটা নিশ্চিত করেছে।

ঘরের মাঠে খেলার ২০ মিনিটে প্রথম গোলের দেখা পায় বার্সেলোনা। মাঝ মাঠে বল পেয়ে অ্যাথলেটিকের চার চার জন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে অবিশ্বাস্য কোণ থেকে গোল আদায় করেন মেসি। সেই চোখ ধাঁধানো গোল প্রতিপক্ষের সব আত্মবিশ্বাস যেন শুষে নেয়! ফলে বাকিটা সময় শুধু স্বাগতিক কাতালনদের আক্রমণ ঠেকাতে ব্যস্ত থাকতে হয়েছে বিলবাওকে। কিন্তু ‘এমএসএনে’র উচ্ছ্বাসের সামনে বালির বাঁধ কী আর টেকে? অবিশ্বই না, পারেনি বিলবাওয়ের ডিফেন্ডারাও। ৩৬ মিনিটে লুইস সুয়ারেজের থালায় সাজানো একটি পাস থেকে স্কোরলাইন ২-০ করে নেইমার।

এরপর ম্যাচের এপিটাফও লেখেন শুরুর নায়ক অর্থাৎ, মেসি। ৭৪ মিনিটে প্রতিপক্ষের দুই ডিফেন্ডারের নাকের ডগা থেকে বল দখল করে বার্সাকে তৃতীয়বার এগিয়ে দেন আর্জেন্টাইন ক্ষুদে যাদুকর। কাউন্টার অ্যাটাকে সেই বলটির যোগান দেন ব্রাজিলিয়ান ফুলব্যাক দানি আলভেস। শেষে বিলবাওয়ের পক্ষে সান্ত্বনার গোলটি করেন স্প্যানিশ স্ট্রাইকার ইনকি উইলিয়ামস। প্রসঙ্গত, আগামী ৬ জুন চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে বার্সেলোনা ইতালিয়ান পরাশক্তি জুভেন্টাসের মুখোমুখি হবে। বার্লিনে অনুষ্ঠিত হবে সেই ম্যাচটি।