October 24, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

আসছে মাতলুবের ‘হাই পাওয়ার’ কমিটি

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সংস্কার ও ব্যবসায়ীদের জন্য ব্যাংক ঋণে সুদের হার কমাতে পৃথক দুটি ‘হাই পাওয়ার’ কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সংগঠনটির সভাপতি আবদুল মাতলুব আহমাদ।

তিনি জানান, আগামী সাত দিনের মধ্যে এ কমিটি দুটি ঘোষণা করা হবে। কমিটি তিন মাসের মধ্যে এফবিসিসিআইকে সংস্কার করবে ও ব্যাংক ঋণে সুদের হার কমাবে।

সোমবার দুপুরে এফবিসিসিআইয়ের নতুন পরিচালনা পর্ষদের প্রথম জরুরি বোর্ড-সভায় এসব সিদ্ধান্ত হয় বলে মাতলুব আহমাদ সাংবাদিকদের জানান। এ সময় পর্ষদের নবনির্বাচিত সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে রোববার দায়িত্ব বুঝে নেন নবনির্বাচিত সভাপতি আবদুল মাতলুব আহমাদ। একই সঙ্গে দুই বছরের জন্য নিজ নিজ দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন প্রথম সহ-সভাপতি, সহ-সভাপতি ও পরিচালকরা।

মাতলুব আহমাদ বলেন, ‘নতুন পরিচালনা পর্ষদের প্রথম দায়িত্ব হবে এফবিসিসিআইকে সংস্কার করা। এ কাজটি দেশের ব্যবসায়ী সমাজ যেভাবে চাইবে ঠিক সেভাবেই হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘সরাসরি ভোটের মাধ্যমে এফবিসিসিআিইয়ের সভাপতি, প্রথম সহ-সভাপতিসহ সম্পূর্ণ পর্ষদ গঠন করার পক্ষে সব সময় আমি ছিলাম। এ নিয়ে আমি অতীতে ফেডারেশন ভবনে অনশন করেছি। সরাসরি নির্বাচনের বিষয়টি অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রথম বোর্ড সভায় বাস্তাবায়নের পদক্ষেপ নেওয়া হবে। আমি আশা করি সরকার আমাদের পদক্ষেপ বাস্তাবায়নে সহযোগিতা করবে।’

গত ২৩ মে দুই বছরের জন্য পরিচালক পদে ৩২ জন নির্বাচিত হয়েছেন। এফবিসিসিআইয়ের ওই নির্বাচনে পরিচালক পদে প্রার্থী ছিলেন ৬৩ জন। এর মধ্যে চেম্বার গ্রুপ থেকে ভোটের মাঠে লড়েছেন ৩০ জন। অন্যদিকে ৩৩ জন লড়েছেন অ্যাসোসিয়েশন গ্রুপ থেকে। ১৬ জন করে দুই গ্রুপ থেকে মোট ৩২ জন প্রার্থী দেশের ‘মিনি পার্লামেন্ট’ খ্যাত এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক নির্বাচিত হয়েছেন।

ওই নির্বাচনে তিনটি প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছে। প্যানেলগুলো হলো নিটল-নিলয় গ্রুপের চেয়ারম্যান আবদুল মাতলুব আহমাদ নেতৃত্বাধীন উন্নয়ন পরিষদ, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসাইন-ড. কাজী এরতেজা হাসান ও শাফকাত হায়দারের নেতৃত্বে ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদ (অ্যাসোসিয়েশন গ্রুপ) এবং বর্তমান সিনিয়র সহ-সভাপতি মনোয়ারা হাকিম আলীর নেতৃত্বাধীন স্বাধীনতা ব্যবসায়ী পরিষদ (চেম্বার গ্রুপ)।

৩২টি পদের মধ্যে আবদুল মাতলুব আহমাদের নেতৃত্বাধীন উন্নয়ন পরিষদ পেয়েছে ২৫টি পদ। বাকি সাতটি পরিচালক পদে বিজয়ী হয়েছেন অপর প্যানেলের প্রার্থীরা।