September 28, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

প্রেসিডেন্ট প্লাজা দিয়েই প্রবেশ করবেন রাষ্ট্রপতি

সংসদ প্রতিবেদক : এবারও বাজেট অধিবেশনে যোগ দিতে প্রেসিডেন্ট প্লাজা ব্যবহার করবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। রাষ্ট্রপতির সংসদ কক্ষে প্রবেশের জন্য সংসদ ভবনের উত্তর দিকে এই বিশেষ প্লাজা নির্মাণ করেন বিশ্বখ্যাত স্থপতি লুই আই কান।

প্রায় ৬৫ হাজার বর্গফুটের শ্বেতপাথরে নির্মিত এই প্লাজা দিয়ে ঢুকে তিনতলায় সংসদের অধিবেশন কক্ষ পর্যন্ত হেঁটে যেতে হয়। বিশেষ এ প্লাজাটি বা প্রেসিডেন্ট প্লাজা হিসেবেই পরিচিত।

এর আগে গত বছর ২০১৪ সালে দশম জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনে যোগ দিতে এ প্রেসিডেন্ট প্লাজা ব্যবহার করেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। যা ছিলো ২০০২ সালের পর একযুগ পরে কোনো রাষ্ট্রপতির প্রথমবারের মতো প্রেসিডেন্ট প্লাজার ব্যবহার। ২০১৪ সালের আগে দীর্ঘ ১২ বছর নানা কারণে রাষ্ট্রপতিরা এ প্লাজা ব্যবহার করতেন না। এর পরিবর্তে সংসদের ড্রাইভওয়ে দিয়ে ঢুকে বিশেষ লিফটে সংসদ কক্ষে যেতেন তারা।

সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার (০৪ জুন) দুপুর ২টা ৩০ মিনিটে বাজেট অধিবেশনে যোগ দিতে সংসদে আসবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। সংসদে প্রবেশের ক্ষেত্রে রাষ্ট্রপতি প্রেসিডেন্ট প্লাজাই ব্যবহার করবেন বলে জানা গেছে। তবে বৃষ্টি হলে বিকল্প পথও ব্যবহার করতে পারেন তিনি।

আগের রাষ্ট্রপতিরা শারীরিকভাবে দুর্বল থাকায় এ প্লাজা ব্যবহার করতেন না বলে জানিয়েছেন সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তারা। তারা জানান, আগের রাষ্ট্রপতিরা বছরের প্রথম অধিবেশন ও বাজেট অধিবেশনের প্রথম দিন সংসদে আসতেন। তবে বর্তমান রাষ্ট্রপতি মাঝে-মধ্যেই সংসদ ভবনে আসেন।

ইতোমধ্যে রাষ্ট্রপতির ব্যবহারের জন্য প্রেসিডেন্ট প্লাজা ধুয়ে-মুছে পরিষ্কার করা হয়েছে। সেখানে গিয়ে দেখা গেছে, প্লাজায় বসানো হয়েছে বিশেষ সিসি ক্যামেরা। একই সঙ্গে অতিরিক্ত নিরাপত্তাকর্মী নিয়োগ করা হয়েছে।

এদিকে বাজেট অধিবেশনে যোগদানের জন্য বাংলাদেশে অবস্থানরত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত এবং হাইকমিশনারদের আমন্ত্রণপত্র পাঠানো হয়েছে সংসদ সচিবালয়ের পক্ষ থেকে। এছাড়া বিশেষ ব্যক্তিদেরও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

বাজেট অধিবেশনকে সামনে রেখে নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। এজন্য সংসদের টানেল ও ড্রাইভওয়েতে গাড়ি রাখা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। দর্শনার্থীদের মোবাইল ফোন বাইরে রেখে ঢুকতে হবে। সংসদের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা একটির বেশি মোবাইল ফোন নিয়ে ভবনে প্রবেশ করতে পারবেন না। প্রতিটি মোবাইল বিশেষভাবে পরীক্ষার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সংসদ ভবন ফুলসহ বিভিন্ন গাছ দিয়ে সাজানো হয়েছে। অধিবেশন চলাকালে অক্সিজেন সুবিধাসহ সার্বক্ষণিক একটি অ্যাম্বুলেন্স থাকবে। সংসদ লবিতে একজন ডাক্তারসহ প্রয়োজনীয় সামগ্রী থাকবে।

রাষ্ট্রপতির সংসদ অধিবেশন কক্ষে প্রবেশের সময় রেওয়াজ অনুযায়ী বিউগল বাজানো হবে।