October 24, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

অনুমোদনের অপেক্ষায় চূড়ান্ত বেতন কাঠামো

জেষ্ঠ্য প্রতিবেদক : মন্ত্রিসভায় অনুমোদনের জন্য চূড়ান্ত করা হয়েছে সরকারি চাকরিজীবীদের নতুন বেতন কাঠামো। এই কাঠামোতে সরকারের বিভিন্ন অধিদফতরের শীর্ষ পদে থাকা প্রশাসন ক্যাডারের বাইরে ডাক্তার, প্রকৌশলীসহ অন্য ক্যাডারের কর্মকর্তাদের সচিব পদমর্যাদার গ্রেড-১ দেয়া হলেও তাদের সঙ্গে সচিবদের বেতন-ভাতার ব্যবধান রাখা হয়েছে। মন্ত্রিসভার অনুমোদনের পরই বেতন কাঠামোটি রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে গেজেট আকারে জারি করা হবে।
সুত্র জানায়, সিলেকশন গ্রেড ও টাইম স্কেল বাদ দেয়ার খবরে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে ক্ষোভ ও হতাশা ছড়িয়ে পড়েছে। এগুলো বহাল রাখার দাবি জানিয়ে সচিবালয়ভিত্তিক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিভিন্ন সংগঠন প্রধানমন্ত্রীর কাছেও স্মারকলিপি দিয়েছে। তাই স্পর্শকাতর এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত না করে মন্ত্রিসভায় নির্দেশনা চাইবে অর্থ মন্ত্রণালয়।
অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত গত বৃহস্পতিবার দেয়া বাজেটে সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন-ভাতা খাতে ১৬ হাজার কোটি টাকা অতিরিক্ত বরাদ্দ দিয়ে ৪৫ হাজার কোটি টাকার সংস্থান রেখেছেন। ফলে এখন চাকরিজীবীরা যে বেতন-ভাতা পাচ্ছেন, এর সঙ্গে নতুন কাঠামোর বর্ধিত মূল বেতন আগামী ১ জুলাই থেকে পাওয়া যাবে।
তবে বাড়ি ভাড়াসহ অন্যান্য ভাতা ২০১৬ সালের জুলাই থেকে দেয়া হবে। মূল বেতনের পাশাপাশি সব ধরনের ভাতাও আয়করের আওতায় আনার ঘোষণা দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী, যা ১ জুলাই থেকে কার্যকর হবে। ভাতার ওপর কর বসানোয় নতুন বেতন কাঠামো নিয়ে কর্মচারীদের মধ্যে যে উচ্ছ্বাস ছিল, তাতে ভাটা পড়েছে।
সুত্র আরো জানায়, ২০০৯ সালের বেতন কাঠামোর তুলনায় নতুন কাঠামোতে বেতনের পরিমাণ দ্বিগুণ হলেও চূড়ান্ত বিচারে এখন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা যা পাচ্ছেন, এর চেয়ে ৬০ শতাংশ বাড়বে। কারণ, ২০১৩ সাল থেকে দেয়া ২০ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা সমন্বয় করা হবে। একই সঙ্গে কমে যাবে ইনক্রিমেন্টও।