September 30, 2022

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

‘রাজাকার’ হাসানের বিরুদ্ধে যত অভিযোগ

আদালত প্রতিবেদক : একাত্তরের মানবতাবিরোধী মামলায় আজ মঙ্গলবার কিশোরগঞ্জের ‘রাজাকার পলাতক সৈয়দ মো. হাসান আলীর বিরুদ্ধে রায় দেওয়া হবে।

বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন ট্রাইব্যুনাল-১ গতকাল সোমবার রায় ঘোষণার এই দিন ঠিক করেন। এর আগে ২ পক্ষের যুক্তিতর্কের শুনানি শেষে গত ২০ এপ্রিল রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ (সিএভি) রাখা হয় মামলাটি। মানবতাবিরোধী মামলায় ট্রাইব্যুনালের ১৯তম রায় এটি।

tribunal

হাসান আলীর বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধে কিশোরগঞ্জে ২৪ জনকে হত্যা, ১২ জনকে অপহরণ ও আটক এবং ১২৫টি ঘরে লুণ্ঠন ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ রয়েছে।

ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর আবুল কালাম আজাদ ২০১৪ সালের ২১ আগস্ট হাসান আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগ (ফরমাল চার্জ) দাখিল করেন। ২৪ আগস্ট ট্রাইব্যুনাল তা আমলে নেয়। আসামির অনুপস্থিতিতে ২০১৪ সালের ১১ নভেম্বর অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে এই মামলার কাজ শুরু হয়।

আসামির পক্ষে মামলা লড়ার জন্য রাষ্ট্রীয় খরচে আব্দুস শুকুর খানকে আইনজীবী নিয়োগ দেয় ট্রাইব্যুনাল।

রাজাকার মো. হাসান আলীর বিরুদ্ধে ট্রাইব্যুনালে আনীত ৬টি অভিযোগ:

অভিযোগ ১: ১৯৭১ সালের ২৭ এপ্রিল হাসান আলীর নির্দেশে তাড়াইল থানাধীন সাচাইল গ্রামের পূর্বপাড়ার হাছান আহমদ ওরফে হাচু ব্যাপারীর বসতবাড়ির ৭টি ঘরে লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করে রাজাকার বাহিনীর সদস্যরা।

অভিযোগ ২: মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ২৩ আগস্ট হাসান আলীর নেতৃত্বে রাজাকার বাহিনীর সদস্যরা তাড়াইল থানাধীন কোনাভাওয়াল গ্রামের শহীদ তোফাজ্জল হোসেন ভূঁইয়া ওরফে লালু ভূঁইয়াকে হত্যা করে ২টি ঘরে লুটপাট চালানো হয় এবং আরও ২জনকে অপহরণ ও আটক করে নিয়ে যায় তারা।

অভিযোগ ৩: ১৯৭১ সালে ৯ সেপ্টেম্বর তাড়াইল থানার শিমুলহাটি গ্রামের পালপাড়ায় অক্রুর পালসহ ১২ জনকে হত্যা এবং ১০টি ঘরে লুণ্ঠন ও অগ্নিসংযোগ করে হাসান আলীর লোকজন। ওই গ্রামের পুরুষদের ধরে লাইনে দাঁড় করিয়ে গুলি করা হয়।

অভিযোগ ৪: একাত্তরের ২৭ সেপ্টেম্বর তাড়াইল থানাধীন ভোরগাঁও গ্রামের বেলংকা রোডে সতীশ ঘোষসহ ৮ জনকে হত্যা ও ১০ জনকে অপহরণ এবং মালামাল লুটপাটে নেতৃত্ব দেন হাসান আলী।

অভিযোগ ৫: মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ৮ অক্টোবর তাড়াইল থানাধীন আড়াইউড়া গ্রামের কামিনী কুমার ঘোষের বসতবাড়ি থেকে কামিনী কুমার ঘোষ ও জীবন চক্রবর্তীকে অপহরণের পরে হত্যা এবং ৬টি ঘরে লুটপাট চালায় হাসান আলীর লোকজন।

অভিযোগ ৬: একাত্তরের ১১ ডিসেম্বর হাসান আলীর নেতৃত্বে তাড়াইল থানাধীন সাচাইল গ্রামের পশ্চিমপাড়ায় রাশিদ আলী ব্যাপারীকে হত্যা এবং ১০০ ঘরে লুণ্ঠন ও অগ্নিসংযোগ করা হয়।