January 29, 2022

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

সাবধান! ৬০ লাখ টাকার জাল নোট ঢাকার বাজারে

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঈদ-পূজা এলেই রাজধানীর বাজারগুলোতে শুরু হয় টাকার খেলা। এ খেলায় কেউ আসে টাকা দিতে, কেউবা আসে নিতে। এই দেওয়া-নেওয়ার মাঝে থাকে আরেকটি বিশেষ চক্র, যাদের মূল টার্গেট বাজারে জাল নোট ছড়িয়ে দেওয়া। এমনই একটি চক্রের ছয় সদস্যকে রাজধানীর পশ্চিম কাফরুল এলাকা থেকে আটক করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে চক্রের হোতা হাওলাদার সোহেল স্বীকার করেন, পশ্চিম কাফরুলের মিয়াধর সড়কের কবরস্থান গলির ফিরোজ সাহেবের বাড়ির পঞ্চম তলা ভাড়া নিয়ে এক কোটি টাকার জাল নোট তৈরি করেন তারা। এরই মধ্যে ৬০ লাখ টাকার জাল নোট রাজধানীর বাজারে ছাড়া হয়েছে। ছড়িয়ে থাকা এসব নোটের মধ্যে রয়েছে পাঁচশ ও হাজার টাকার নোট। বাকি ৪০ লাখ জাল নোট ছাপা ও অর্ধছাপা অবস্থায় উদ্ধার করে ডিবি। এছাড়া গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে ৭০ লাখ টাকা মূল্যের জাল টাকা তৈরির বিভিন্ন সরঞ্জামও উদ্ধার করা হয়।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের যুগ্ম কামিশনার মনিরুল ইসলাম বলেন, “এ চক্রে ১২জন সদস্য রয়েছে। তাদের মধ্যে ছয় জনকে গ্রেফতার করেছি। বাকি পলাতক ছয় জনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। তাদের গ্রেফতার করতে পারলে বিস্তারিত তথ্য জানতে পারব। বাজারে যে ৬০ লাখ টাকা এখনও ছড়িয়ে আছে সে ব্যাপারেও তখন তথ্য পাওয়া সম্ভব হবে।”

তিনি আরো বলেন, ‘ওই চক্র এরই মধ্যে ৬০ লাখ টাকা মূল্যের জাল টাকার নোট বাজারে ছেড়েছে। তাদের মূল টার্গেটে থাকে বছরের দুটি বড় ঈদ। ঈদকে সামনে রেখেই তারা জাল টাকা তৈরি করে। জাল টাকা ছাড়তে তাদের টার্গেটে থাকে গ্রাম এলাকা। প্রতিটি জেলাতে তাদের সিন্ডিকেট রয়েছে। এদের মাধ্যমে তারা জাল টাকা বাজারে ছাড়ে।

মনিরুল ইসলাম বলেন, “এছাড়া তাদের কাছ থেকে জাল টাকা তৈরির যেসব কাগজ উদ্ধার করা হয়েছে তা দিয়ে পাঁচ কোটি টাকা মূল্যমানের জাল টাকার নোট ছাপাতে পারত। এক লাখ জাল টাকা বিক্রি হয় ১২ হাজার টাকায়।”

চক্রের মূল হোতা আটকের বিষয়ে তিনি বলেন, “আটককৃত চক্রের মুলহোতা হাওলাদার সোহেল। এর আগে সে দুই বার ডিবি পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছিল। জামিনে বেরিয়ে এসে আবার এ কাজের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে।”