June 22, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

ভেজাল পণ্য পেলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না: শিল্পমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, ভেজাল পণ্য পেলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। আজ বৃহস্পতিবার সকালে শিল্পমন্ত্রণালয়ে পবিত্র রমজানে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যপণ্যের মান নিয়ন্ত্রণে বিএসটিআইয়ের বিশেষ কার্যক্রম সম্পর্কে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, ভেজালবিরোধী অভিযান পরিচালনার সময় বড় ছোট কোনো প্রতিষ্ঠান পরিমাপ করা হবে না। রাস্তার পাশে সরবত বিক্রেতা থেকে বড় প্রতিষ্ঠান কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

তিনি আরও বলেন, রমজানে অসাধু ব্যবসায়ীরা ভেজাল, নিন্মমানের খাদ্যপণ্য ও পানীয় প্রস্তুত এবং বিপণন করতে না পারে সেই লক্ষ্যে বিএসটিআই সারাদেশে অভিজান পরিচলানা করবে। এর মধ্যে ঢাকা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে রাজধানীতে প্রতিদিন কাজ করবে ৪টি করে মোবাইল কোর্ট। এছাড়া সারাদেশে বিএসটিআইয়ের আঞ্চলিক অফিসের মাধ্যমে সব ধরণের ভেজালবিরোধী অভিযান পরিচালিত হবে।

আমির হোসেন আমু বলেন, রমজান উপলক্ষে রোজাদারগণ সচরাচর যেসব খাদ্য ও পানীয় গ্রহণ করে থাকেন যেমন: মুড়ি, খেজুর, কলা, সফ্ট ড্রিংক, ফ্রুট জুস, ফ্রুট ড্রিংকস, ভোজ্য তেল, ঘি, নুডলস, লাচ্ছা সেমাই, সেমাই, পানি, ডেক্সট্রোজ মনোহাইড্রেট ইত্যাদির ওপর বিশেষ নজরে থাকবে।

তিনি বলেন, রমজানে জেলা প্রশাসন, র‌্যাব ও ডিএমপির উদ্যোগে পরিচালিত মোবাইল কোর্টে নিয়মিতভাবে বিএসটিআইয়ের প্রসিকিউটিং অফিসারদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা হবে। ফলে এই অভিযানের স্বচ্ছতা সম্পর্কে কোনো ধরনের প্রশ্নের অবকাশ থাকবে না। ভেজালবিরোধী অভিযান পরিচালনায় প্রভাবশালী কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান অসাধু ব্যবসায়ে জড়িত থাকার প্রমাণ পেলে তাকে বা ওই প্রতিষ্ঠানকেও ছাড় দেওয়া হবে না।

মন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যে ইফ্তার ও সেহরিতে অধিক পরিমাণে ব্যবহৃত ৩০টি খাদ্যপণ্যের নমুনা সংগ্রহ করে ল্যাবে পরীক্ষণের জন্য পাঠানো হয়েছে। এই কার্যক্রম অব্যাহত আছে ও থাকবে। এছাড়াও প্রযোজনীয় সব পণ্যের মান পরীক্ষা করা হবে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে শিল্পসচিব মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, বিএসটিআইয়ের মহাপরিচালক ইকরামুল হক, শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সুষেণ চন্দ্র দাস এবং শিল্প মন্ত্রণালয় ও বিএসটিআইয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।