June 22, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

সৌদি যেতে আগ্রহ নেই বাংলাদেশিদের

প্রবাস ডেস্ক : অপেক্ষাকৃত কম বেতন এবং নেতিবাচক অভিজ্ঞতার কারণে সৌদি আরবে যেতে আগ্রহ হারাচ্ছেন বাংলাদেশি নারী গৃহকর্মীরা। সৌদি আরবে কাজে যেতে নাম নিবন্ধনও করেছেন অল্প সংখ্যক বাংলাদেশি নারী। সৌদিতে নিযুক্ত বাংলাদেশ মিশনের লেবার কাউন্সিলর সারোয়ার আলম এমনই তথ্য জানিয়েছেন।

সারোয়ার আলম বলেন, বাংলাদেশের অন্তত ১০০টি রিক্রুটমেন্ট অফিস থেকে মাত্র পাঁচ হাজার নারী নিবন্ধন করেছেন। এদের আবার সবাই সৌদি যেতে পারবেন না। মেডিকেল চেকআপসহ বিভিন্ন পরীক্ষার পর কিছু শ্রমিক বাদ পড়তে পারেন। সবরকম আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে রমজান মাসে অন্তত ৫শ’ কর্মী সৌদি যেতে পারবেন।

অল্পসংখ্যক নারী সৌদিতে যাওয়ার কারণ সম্পর্কে লেবার কাউন্সিলর বলেন, মাসে মাত্র ৮শ’ সৌদি রিয়াল বেতনের জন্য অনেকেই দেশ ও পরিবার ছেড়ে সৌদিতে যেতে আগ্রহী হচ্ছেন না। অনেক দেশ আছে যেখানে সৌদি আরবের চেয়ে বেশি বেতন দিয়ে থাকে।

গৃহস্থালির কাজে বাংলাদেশি শ্রমিকরা মাসিক বেতন পায় ৮শ রিয়াল আর হংকং, জর্ডান ও থাইল্যান্ডে ৯শ থেকে ১১২৫ সৌদি রিয়ালের সমান। তাই বাংলাদেশের শ্রমিকরা হংকং, জর্ডান, থাইল্যান্ডসহ অন্যান্য দেশে যেতে আগ্রহ দেখাচ্ছে।

লেবার কাউন্সিলর বলেন, সৌদিতে শ্রমিক বিমুখিতার আরেকটি কারণ হলো সেখানে শ্রমিকদের মৌলিক অধিকারগুলো নিশ্চিত হবে কি-না সেই গ্যারান্টি সৌদি সরকারের পক্ষ থেকে দেয়া হচ্ছে না। তাদের কর্মক্ষেত্রে অধিকারগুলো নিয়েও তারা সন্দিহান।

তিনি আরো বলেন, সৌদিতে গৃহকর্মীর কাজ করতে নারীদের কিছু বাজে অভিজ্ঞতা হয়েছে। তাই বাংলাদেশ আট বছর আগে থেকেই নারী শ্রমিক পাঠানো বন্ধ করে দিয়েছে। এ প্রক্রিয়া পুনরায় চালু করতে কিছুটা সময় লাগবে। সে জন্য সৌদি যেতে গৃহকর্মীরা কম আগ্রহ দেখাচ্ছো

এ বিষয়ে সৌদির শ্রম মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তাসির আল মাফরিজ বলেন, বাংলাদেশ থেকে গ্রহস্থালির কাজে শ্রমিক আনার জন্য মন্ত্রণালয় সকল সমস্যা উত্তরণের জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

নাইজেরিয়ার দিকে ঝুঁকছে সৌদি :
ইতোম্যধে সৌদি সরকার বাংলাদেশিদের কম আগ্রহ দেখে আফ্রিকার দেশ নাইজেরিয়ার দিকে ঝুঁকছে। তাদের বেতনও নির্ধারণ করে দিয়েছে। মাসে ৭৫০ সৌদি রিয়াল। নাইজেরিয়ার নাগরিকদের ভিসাও দিতে শুরু করেছে দেশটির শ্রম মন্ত্রণালয়।