September 18, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

তিন রাজাকারের রায় যেকোনো দিন

আদালত প্রতিবেদক : একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় বাগেরহাটের তিন রাজাকার শেখ সিরাজুল হক ওরফে সিরাজ মাস্টার, আব্দুল লতিফ তালুকদার এবং খান আকরাম হোসেনের রায় যেকোনো দিন ঘোষণার জন্য অপেক্ষমাণ (সিএভি) রেখেছেন ট্রাইব্যুনাল-১।

মঙ্গলবার দুই পক্ষের যুক্তিতর্কের শুনানি শেষে ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বে তিন সদস্যের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদেশ অনুযায়ী এখন যেকোনো দিন আদালত এ মামলার রায় দিতে পারেন।

এর আগে ট্রাইব্যুনালে প্রসিকিউটর সাইয়েদুল হক সুমন আসামিদের বিরুদ্ধে তার আইনি যুক্তি উপস্থাপন তুলে ধরেন। অপর দিকে আসামিপক্ষে আইনজীবী ব্যারিস্টার এম সারওয়ার হোসেন এবং সিরাজ মাস্টারের পক্ষে রাষ্ট্র নিয়োজিত আইনজীবী আবুল হাসান পাল্টা আইনি যুক্তি দেখান।

উল্লেখ্য, মুক্তিযুদ্ধের সময় বাগেরহাটে হত্যা, গণহত্যা ও লুণ্ঠনসহ মোট সাতটি অভিযোগ রয়েছে এই তিন আসামির বিরুদ্ধে। গত বছর ৫ নভেম্বর অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে এই তিন আসামির বিচার শুরু করেন ট্রাইব্যুনাল। ২ ডিসেম্বর প্রসিকিউশনের সূচনা বক্তব্যের মধ্যে দিয়ে শুরু হয় সাক্ষ্যগ্রহণ।

মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে বাগেরহাটের কচুয়ার শাঁখারীকাঠি বাজারে ৪২ জনকে গণহত্যা, ধর্ষণ ও বাড়িতে অগ্নিসংযোসহ ছয়টি অভিযোগে ২০০৯ সালে সিরাজ মাস্টারসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা হয়।

ওই গণহত্যায় নিহত রঘুদত্তকাঠি গ্রামের শহীদ জিতেন্দ্র নাথ দাসের ছেলে নিমাই চন্দ্র দাস কচুয়া থানায় মামলাটি দায়ের করেন। মামলাটি পরে ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর করা হয়।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম নেতৃত্বাধীন ট্রাইব্যুনাল-১ গত ১০ জুন এই তিনজনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করলে কচুয়া থানা পুলিশ গত ১১ জুন লতিফ তালুকদারকে গ্রেফতার করে।

এরপর ১৯ জুন আকরাম হোসেন খানকে গ্রেফতার করা হয় রাজশাহী থেকে। ২০ জুলাই গ্রেফতার হন সিরাজ মাস্টার।