June 23, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

বন্যাদুর্গতদের জন্য ১২৬ মেডিকেল টিম

নিজস্ব প্রতিবেদক : বন্যাপরবর্তী রোগবালাই মোকাবিলায় ১২৬টি মেডিকেল টিম বন্যাদুর্গত বিভিন্ন জেলায় পাঠিয়েছে সরকার।

পাহাড়ি ঢল ও টানা বর্ষণে দেশের বিভিন্ন জেলায় বন্যা হয়। ওই সব জেলায় বন্যার কারণে যাতে মানুষ রোগ ভোগের শিকার না হন সে লক্ষ্যে এ সব মেডিকেল টিম পাঠানো হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

সচিবালয়ে রবিবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে ‘বন্যা পরবর্তী স্বাস্থ্য ঝুঁকি’ ও ‘মার্স-করোনা ভাইরাস’ সংক্রান্ত বৈঠক শেষে এ সব তথ্য জানান স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনামন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, জনস্বাস্থ্য রক্ষায় বন্যাপরবর্তী যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত আছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

গত কয়েক দিনে কক্সবাজার এবং বান্দরবানে পানির স্রোতে ও পাহাড় ধসে ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। জেলা দু’টির অনেক এলাকা পানিতে ডুবে গেছে। বন্যায় আক্রান্ত কয়েকটি জেলায় কয়েক লাখ মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন।

মার্স করোনা ভাইরাস মুক্ত বাংলাদেশ

এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের মার্স (মিডল ইস্ট রেসপিরেটরি সিনড্রোম) করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত ৬৪টি নমুনা পরীক্ষায় সবগুলোতেই ‘নেতিবাচক ফল’ পাওয়া গেছে। এ সব নমুনার বেশিরভাগই হজফেরত যাত্রীদের কাছ থেকে নেওয়া হয়েছিল বলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সূত্র উল্লেখ করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, এ পর্যন্ত ২৬টি দেশে মার্স-করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়েছে। ২০১২ সালের সেপ্টেম্বর থেকে চলতি বছরের ২১ জুন পর্যন্ত ১৩৪২ জন আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ৪৭৭ জন মারা গেছেন। এই রোগে মৃত্যুর হার ৩৫ শতাংশ।

বন্যাদুর্গতদের জন্য ১২৬ মেডিকেল টিম

এশিয়ার দক্ষিণ কোরিয়ায় ১৮১ জন এবং চীন ও থাইল্যান্ডে একজন করে এই রোগে আক্রান্ত হয়েছেন।

মোহাম্মদ নাসিম এই বিষয়ে বলেন, বর্তমানে রোগের উপস্থিতি না থাকা মানে আশঙ্কামুক্ত থাকা নয়, যেকোনো সময় যেকোনো রোগ আসতে পারে, তা মোকাবিলায় আমাদের প্রস্তুতি আছে।

যেকোনো নতুন রোগের নমুনা দেখা দিলে জনগণকে আতঙ্কিত না হয়ে নিকটস্থ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যোগোযোগের পরামর্শ দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

তিনি আরও বলেন, মার্স ভাইরাস মোকাবিলায় সব পর্যায়ে আমাদের স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া আছে। প্রয়োজনে আরও ব্যবস্থা নেওয়ার প্রস্তুতি আছে।

বৈঠকে স্বাস্থ্য সচিব সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক দীন মোহাম্মদ নুরুল হকসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।