September 28, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

মিসরে গণঅভ্যুত্থানের ডাক ব্রাদারহুডের

বিদেশ ডেস্ক : মিসরে পুলিশের হাতে গত বুধবার মুসলিম ব্রাদারহুডের ১৩ নেতা নিহতের ঘটনায় দেশজুড়ে গণঅভ্যুত্থানের আহ্বান জানিয়েছেন সংগঠনটির নেতারা। প্রেসিডেন্ট সিসিকে অপরাধী আখ্যা দিয়ে এক বিবৃতিতে এ আহ্বান জানান তারা। খবর আলজাজিরার।

কায়রোর পশ্চিমাঞ্চলে ব্রাদারহুডের নেতাদের অবস্থান করা একটি এ্যাপার্টমেন্টে অভিযান চালায় পুলিশ। এ সময় পুলিশ সদস্যদের হাতে সাবেক সংসদ সদস্য নাসির আল-হাফিসহ সংগঠনটির ১৩ নেতা নিহত হন।

ব্রাদারহুডের দাবি, বিভিন্ন জেলে আটক থাকা সংগঠনটির নেতাকর্মীদের পরিবারের সদস্যদের আর্থিক সহায়তা প্রদানের বিষয়ে আলোচনা করছিলেন ওই নেতারা।

তবে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, পরবর্তী হামলার পরিকল্পনা করতে বৈঠকে বসেছিলেন ওই নেতারা। এদের মধ্যে দুইজন মৃত্যদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ছিল বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে দেওয়া বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তদন্তকারীরা ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র, ৪৩ হাজার মিসরীয় পাউন্ড (৫ হাজার ৩০০ মার্কিন ডলার), নথিপত্র ও মেমোরি কার্ড উদ্ধার করেছে। তারা সেনাসদস্য, পুলিশ, বিচার বিভাগীয় সদস্য ও গণমাধ্যমকর্মীদের ওপর হামলার পরিকল্পনা করেছিল।

ব্রাদারহুডপন্থী মেকামালেন টেলিভিশনে বলা হয়েছে, কোনো ধরনের তল্লাশি বা অভিযোগ ছাড়াই ওই নেতাদের একটি বাড়িতে আটকে রেখে নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করা হয়।

এ ঘটনার পরপরই মুসলিম ব্রাদারহুডের পক্ষ থেকে গণঅভ্যুত্থানের আহ্বান জানিয়ে বিবৃতি দেওয়া হয়। ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এ ধরনের হত্যাকাণ্ড মারাত্মক প্রভাব ফেলবে। অপরাধী (প্রেসিডেন্ট) আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসি ও তার গ্যাং এ অপরাধের জন্য সম্পূর্ণ দায়ী।

সমর্থকদের উদ্দেশ্যে দেওয়া বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘আপনাদের জন্মভূমি, জীবন ও সন্তানদের রক্ষায় বিদ্রোহ গড়ে তুলুন।’

এ হত্যাকাণ্ডকে ‘জন্মভূমির বিরুদ্ধে করা ঘৃণ্যতম হত্যাকাণ্ড’ বলে উল্লেখ করেছে সংগঠনটি।

বিবৃতিতে অবিচার ও জুলুমকে নিশ্চিহ্ন করে মিসরকে আবারও উদ্ধারের আহ্বান জানানো হয়েছে।