October 22, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

আবারও হতাশ মেসি, কোপা চ্যাম্পিয়ন চিলি

ক্রীড়া ডেস্ক : পারলেন না মেসি, পাললেন না হিগুয়েন, আগুয়েরা বা নীল জার্সিদের অন্য কেউ। পুরো নব্বই মিনিট গোলশূন্য থাকার পর অতিরিক্ত তিরিশ মিনিটের খেলায়ও কাটলোনা গোল খরা। এর অনিবার্য পরিনতিতে খেলা গড়ালো পেনাল্টি শুট আউটে।

কিন্তু শেষ পর্যন্ত পেনাল্টিতে স্বাগতিক চিলির কাছে যেন পাত্তাই পেল না বিশ্বকাপের রানার আপরা। শুধু মেসি গোল করতে পারেন আর্জেন্টিনার প্রথম পেনাল্টি থেকে। এরপর গঞ্জালো হিগুয়েইনসহ দুজন মিস করেন পর পর। হিগুয়েইনের শট ক্রসবারের অনেক উপর দিয়ে চলে যায়। আর এভার বানেগার শট ঠেকিয়ে দেন চিলির গোলরক্ষক ক্যাপ্টেন ক্লাউডিও ব্রাভো।

অপরদিকে, চিলির পক্ষে ভিদালসহ অন্যরা পরপর চারটি গোল করেন। ফলে বাকি শুটগুলো আর নেওয়ার প্রয়োজন পরেনি। চিলির আলেক্সিস সানচেজের শটটি রোমেরোকে ফাঁকি দিয়ে গোলপোস্টে ঢুকতেই মাঠ কাঁপানো উল্লাসে ফেটে পড়ে নয়া কোপা চ্যাম্পিয়ন স্বাগতিক দলের হাজার হাজার দর্শক।

অনেকেই আশা করছিলেন গত বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার পক্ষে দুর্দান্ত পারফর্ম করা গোলকিপার রোমেরো হয়তো পেনাল্টি শুটআউটে তুরুপের তাস হবেন। কিন্তু সেরকম কিছুই করতে পারেননি তিনি। যদিও তাকে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী মনে হচ্ছিল।

এদিকে, গত বিশ্বকাপের ফাইনালেও গোল করতে না পারা বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি কোপা ফাইনালেও গোল করতে পারলেন না। তবে দলের পক্ষে পেনাল্টিতে গোল ঠিকই করেছেন তিনি। এর আগে গত মঙ্গলবার টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে প্যারাগুয়েকে রীতিমত গোল বন্যায় ভাসিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করে মেসি বাহিনী। প্যারাগুয়ে ৬-১ গোলে বিধ্বস্ত হয় তাদের কাছে। তাই বিশ্বজুড়ে ম্যারাডোনা-মেসি ভক্তরা ভেবেছিল আর্জেন্টিনা বুঝি শনিবার সান্টিয়াগোর ফাইনালে  চিলিকে নিয়ে ইঁদুর-বিড়াল খেলা খেলবে। কিন্তু শনিবারের খেলা দেখে মনে হয়েছে- শিকারীই যেন উল্টো শিকারে পরিণত হয়েছে।

পুরো খেলাজুড়ে আগুনে লালজার্সির চিলি অসাধারণ খেলেছে এটা সবাই স্বীকার যাবেন। শনিবারের এই ফাইনালে চিলির অ্যালেক্সিস, ভিদাল, আর্জেন্টিনার পক্ষে মেসির অসাধারণ কিছু কারুকাজ ফুটবলভক্তরা অনেককাল মনে রাখবে। চিলির আত্মবিশ্বাসী আগুনঝরানো পারফর্মেন্সে অতিরিক্ত ফাউল জর্জরিত হলেও হাইভোল্টেজের এই খেলা ছিল উপভোগ্য। তবে ফাউল দুই দলই করে। হলুদ কার্ড জুটেছে দুদলের খেলোয়াড়দের ভাগ্যেই। মোট সাতটি ইয়েলো কার্ডের ৪টি স্বাগতিকরা আর ৩টি দেখে আর্জেন্টিনা।

চিলির ফুটবল ইতিহাসে কোপা ২০১৫ বিজয় সবচেয়ে বড় সাফল্যের ঘটনা। এর আগে এ ধরনের সাফল্য তাদের পদচুম্বন করেনি। নিঃসন্দেহে দক্ষিণ আমেরিকান ফুটবলের নতুন রাজা এখন চিলি।

খেলাটি শুরু হয় বাংলাদেশ সময় শনিবার রাত ২টায়। উত্তেজনাকর এ ম্যাচে উভয় দলই বেশ কটি সুযোগ পায়। কিন্তু গোল নামক সোনার হরিণ মূল সময় এবং অতিরিক্ত ৩০ মিনিটে ধরা দেয়নি কারও পা বা মাথায়ই।