September 17, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

আইএমএফের শর্তে সরকারের সম্মতি : মুহিত

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : ‘বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন’ (বিপিসি)-এর সমুদয় হিসাব বিদেশী প্রতিষ্ঠান দ্বারা অডিট করানোর বিষয়ে সরকারের অনাপত্তির কথা ইতোমধ্যেই ‘আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল’ (আইএমএফ)-কে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সচিবালয়ে বুধবার সকালে এ কথা জানান অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

এর আগে ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য’দের একটি প্রতিনিধিদল অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে তার দফতরে সাক্ষাৎ করেন। তিন সদস্য এ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন গৌতম কুমার চাকমা। অপর দু’জন হলেন কে এস মং ও মাহবুবুর রহমান।

এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘সরকারের অনাপত্তির কথা ইতোমধ্যেই চিঠি দিয়ে আইএমএফ-কে জানানো হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘‘ঈদের আগে ‘বর্ধিত ঋণ সহায়তা’র (ইসিএফ) শেষ দুই কিস্তির অর্থ নেওয়া হবে না, যখন বলেছিলাম তখনও ওই কথার পরের দিনই আইএমএফ-কে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল। আর এবারও বিপিসি’র সমুদয় হিসাব বিদেশী কোম্পানি দিয়ে অডিট করানোর বিষয়ে সরকারের সম্মতির কথা আইএমএফ-কে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।’’

উল্লেখ্য, ইসিএফ-এর শেষ দুই কিস্তির অর্থ ২৮ কোটি ডলার ছাড়ের ক্ষেত্রে বিপিসি’র সমুদয় হিসাব কোনো বিদেশী কোম্পানি দিয়ে অডিট করানোর শর্ত দিয়েছিল আইএমএফ।

এ বিষয়ে ঈদের আগে অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘‘এ শর্ত মেনে আইএমএফ-এর ‘ইসিএফ’ ঋণের শেষ দুই কিস্তির অর্থ নেওয়া হবে না।’’

কিন্তু ঈদের পর প্রথম কার্যদিবসে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আইএমএফ-এর কাছ থেকে ইসিএফ-এর শেষ দুই কিস্তির ২৮ কোটি ডলার বাংলাদেশ নিচ্ছে। আগামী অক্টোবরের মধ্যে এ অর্থ পাওয়া যাবে।’

ইসিএফ সহায়তা গ্রহণের ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন প্রসঙ্গে মুহিত তখন বলেন, ‘বিদেশী অডিট কোম্পানি দিয়ে বিপিসি’র সমুদয় হিসাব অডিট করার ক্ষেত্রে আইনগত কোন বাধা নেই। এ কারণে সরকার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেছে।’

পার্বত্য আঞ্চলিক পরিষদের তিন সদস্যের সাক্ষাৎ

পার্বত্য আঞ্চলিক পরিষদের তিন সদস্যের সাক্ষাৎ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘তাদের তো অনেক অভিযোগ। নানা কারণে তাদের কিছু বিষয় বাস্তবায়িত হয়নি, তাদের ক্ষমতায়ন হয়নি।’

এদিকে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের বিষয়ে জানতে চাইলে পার্বত্য আঞ্চলিক পরিষদের সদস্যরা এ বিষয়ে কিছু বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

গৌতম কুমার চাকমা বলেন, ‘বিষয়টি মন্ত্রী মহোদয়ের কাছ থেকে জেনে নেবেন।’