June 25, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

স্তন দিয়ে পুলিশের উপর আক্রমন!

বিদেশ ডেস্ক : স্তন দিয়ে নাকি তিনি ‘আক্রমণ’ হেনে ছিলেন এক পুলিস চিফ ইন্সপেক্টরের উপর! আর তার জেরেই হংকংয়ের এক মহিলাকে হাজতবাস করতে হল। এই ঘটনায় হংকংয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে। সাধারণ মানুষের অভিযোগ শাসকের এই আচরণ হাস্যকর এবং ত্রাসসৃষ্টিকারী।

চলতি বছর পয়লা মার্চ ক্রস-বর্ডার ট্রেডার্সদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন হংকংয়ের কিছু সাধারণ মানুষ। হঠাতই চিফ ইন্সপেক্টর চান কা-পো অভিযোগ করেন তাঁর ডান হাতে নাকি স্তন দিয়ে ‘হামলা’ করেছেন বছর ৩০-এর যুবতী এনজি লাই-ইং। সম্প্রতি সেই অভিযোগের ভিত্তিতে ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট এনজি-কে দোষী সব্যস্ত করেছেন।

সেই দিনকার ঘটনার ভিডিও ফুটেছে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে বিক্ষোভ প্রদর্শনের সময় পুলিসের সঙ্গে বিবাদের সময় মাটিতে পড়ে যান এনজি লাই-ইং। এর ঠিক পরেই কী ঘটেছে ভিডিও ফুটেজটিতে তা স্পষ্ট নয়। কিন্তু ফুটেজটি যেখানে শেষ হয়েছে সেখানে দেখা যাচ্ছে ঐ মেয়েটির মুখ থেকে রক্ত ঝড়ছে।

সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টে প্রকাশিত একটি রিপোর্ট অনুযায়ী এনজি অভিযোগ করেছেন ওই পুলিস অফিসারই তাঁর শ্লীলতাহানি করেছেন। তিনি ‘যৌন হেনস্থার’ অভিযোগে চেঁচিয়ে প্রতিবাদ করেতে শুরু করেন।

যদিও, ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট মাইকেল চান পিক-কিউ এনজি-র অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। তাঁর দাবি ওই যুবতী পুলিস অফিসারের সম্মানহানি করার উদ্দেশ্যে নাকি মিথ্যে শ্লীলতাহানির অভিযোগ এনেছেন।

বিচারকের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদেই এই মুহূর্তে উত্তাল হংকং। নারী-পুরুষ নির্বিশেষে টি-শার্টের ব্রা পড়ে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। তাঁদের হাতের প্ল্যাকার্ডে লেখা ”স্তন অস্ত্র নয় (Breasts are not weapons)”, ”পুলিস তোমার লজ্জা হওউয়া উচিৎ (Shame on Police)”।

বিচারকের নির্দেশে সাড়ে তিন মাস জেলে থাকতে হবে এনজি লাই-ইং-কে।

হংকংয়ের সাধারণ মানুষ প্রশ্ন তুলেছেন কীভাবে স্তন দিয়ে কাউকে আক্রমণ করা যায়! এই রায়ের ফলে ভবিষ্যতে যৌন হেনস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে পিছিয়ে আসবেন মহিলারা। আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন অনেকেই।

এই রায় সারা পৃথিবীর মহিলাদের পক্ষেই অসম্মানজনক। মন্তব্য করেছেন সে দেশের গণতন্ত্রপন্থী বিধায়ক লিং কোক-হাং।