September 28, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

জিয়ায় নির্দেশেই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা : হানিফ

নিজস্ব প্রতিবেদক : আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেছেন, ‘বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান কখনও দেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করেননি। স্বাধীনতাকে হত্যা করতে জিয়াউর রহমানের নির্দেশেই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছিল।’

রাজধানীর ওয়াপদা ভবনে মঙ্গলবার দুপুরে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড শ্রমিক কর্মচারী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

‘১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪০তম শাহাদাৎ বার্ষিকী’ উপলক্ষে সভাটি আয়োজন করা হয়।

 হানিফ বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ হতো না। আর তাই স্বাধীনতাবিরোধীরা ষড়যন্ত্র করেছিল। সেই ষড়যন্ত্র বাস্তবায়ন করেছিলেন বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান। জিয়াউর রহমান কখনও স্বাধীনতায় বিশ্বাস করেননি। জিয়াউর রহমানের নির্দেশেই স্বাধীনতাকে হত্যা করার জন্যই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছিল। জিয়াউর রহমান ক্ষমতায় গিয়ে গোলাম আযমকে দেশে ফিরিয়ে এনেছিলেন। শাহ আজিজকে প্রধানমন্ত্রী বানিয়ে ছিলেন।’

আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, ‘দেশে আওয়ামী লীগ সরকার যখনই ভালো পদক্ষেপ নেয়, একাত্তরের পরাজিত শক্তিকে সঙ্গে নিয়ে খালেদা জিয়া তখনই বাধা সৃষ্টি করেন। খালেদা জিয়ার পুত্র তারেক রহমানের নির্দেশে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা করে আওয়ামী লীগকে ধ্বংস করতে চেয়েছিল। আজও ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার শিকার হওয়া অনেকেই স্প্লিন্টার বহন করে বেড়াচ্ছেন।’

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ করে হানিফ বলেন, ‘আপনি (খালেদা) একাত্তরের পরাজিত শক্তির নির্দেশে আন্দোলনের নামে সন্ত্রাসী ও নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড চালিয়ে ছিলেন। সে জন্য দেশের মানুষ আপনাকে আস্তাকুঁড়ে নিক্ষেপ করেছে। ভবিষ্যতেও যদি সন্ত্রাসী ও নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড চালান আপনাকে দেশের মানুষ আস্তাকুঁড়ে নিক্ষেপ করবে।’

খালেদার উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের মানুষ আর রাজনীতির নামে ভাঙাগড়ার খেলা আর দেখতে চায় না। মানুষ তার ভাগ্যের পরিবর্তন চায়। আপনি (খালেদা) বলুন কোন ভালো কাজটি করেছেন। ২০০১-০৬ সালে ক্ষমতায় থাকাকালীন উন্নয়নের চিত্র থাকলে তুলে ধরুন। হ্যাঁ, আপনি উন্নয়ন করেছেন জঙ্গিবাদের। আপনার আমলেই ৫ বার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ।’

সংগঠনের সভাপতি মোল্ল্যা আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক সুলতান আহমেদ, জাতীয় শ্রমিক লীগ নেতা আলাউদ্দিন মিয়া, সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বোরহান উদ্দিন খান প্র্রমুখ।