June 17, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

১০ টাকায় ব্যাংক হিসাব খুলতে পারবেন নতুন নাগরিকরা

লালমনিরহাট প্রতিনিধি : সদ্য বিলুপ্ত দেশের ১১১টি ছিটমহলের নতুন নাগরিককে ঋণ সহায়তা দিতে বাংলাদেশ ব্যাংক শুক্রবার থেকে তথ্য যাচাইয়ের কাজ শুরু করেছে।

এ লক্ষ্যে শনিবার সদ্য বিলুপ্ত লালমনিরহাট জেলার ভিতরকুটি ও বসপচাই ছিটমহল এবং দুপুরে জেলার পাটগ্রাম উপজেলার বাঁশকাটা, হাতীবান্ধা উপজেলার গোতামারী ছিটমহলে তথ্য যাচাইয়ের কাজ এবং ফরম বিতরণ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বাংলাদেশে অন্তর্ভুক্ত লালমনিরহাট জেলায় ৫৯টি, নীলফামারী জেলায় ৪টি, পঞ্চগড় জেলায় ৩৬ ও কুড়িগ্রাম জেলার ১২টি ছিটমহল রয়েছে। মোট ১১১টি ছিটমহলের ৪১ হাজার ৪৪৯ জন মানুষ এ ঋণ সুবিধা পাবে।

ঋণ বিতরণ সংক্রান্ত ছিটবাসীদের সাথে মতবিনিময় সভায় বাংলাদেশ ব্যাংক রংপুর শাখার মহাব্যবস্থাপক খুরশীদ আলম জানান, সদ্য বিলুপ্ত ছিটমহলবাসীদের ঋণ গ্রহণে জাতীয় পরিচয়পত্র ও জমির প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না থাকলেও ক্রাস প্রোগ্রাম ও বিশেষ প্রোগ্রামের আওতায় তফসিলভুক্ত বিভিন্ন ব্যাংক থেকে দ্রুত ঋণ প্রদানের সুপারিশ করা ও ঋণ বিতরণে প্রাথমিক পর্যায়ে ছোট ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের গুরুত্ব দেওয়া হবে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকে আলাদা ঋণ কার্যক্রমের প্রস্তাব পাঠানো এবং পেশা অনুযায়ী ঋণের ব্যবস্থা করা হবে। ঋণ সহায়তা পেতে ছিটবাসীদের নিকটবর্তী বিভিন্ন তফসিলি ব্যাংকে মাত্র ১০ টাকায় ব্যাংক হিসাব খোলার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তথ্য যাচাইয়ের পর আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের নীতি-নির্ধারণী বৈঠকে নতুন নাগরিকদের জীবন-মান উন্নয়নে ঋণ সহায়তার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও তিনি নতুন বাংলাদেশিদের জানিয়ে দেন।

এ সময় বাংলাদেশ ব্যাংক হেড অফিসের সহকারী পরিচালক ইসানা ফারিন, ইসলামী ব্যাংক ইভিপি হেড অব জোন রংপুর মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, অগ্রণী ব্যাংক কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাট জোনের এজিএস মোস্তফা-ই কাদের, কৃষি ব্যাংক লালমনিরহাট জোনাল অফিসের প্রিন্সিপাল অফিসার মোস্তাফিজার রহমান ও সোনালী ব্যাংক কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাট জোনের ডিজিএম রফিকুল ইসলামসহ অন্যান্য ব্যাংকের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, সদ্য বিলুপ্ত দেশের ১১১টি ছিটমহল অধিবাসীদের উন্নয়নের মূল ধারায় সম্পৃক্ত করতে সরকারি- বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান কর্ম-পরিকল্পনা চূড়ান্ত করার প্রক্রিয়াও শুরু করেছে। এর মধ্যে ইসলামী ফাউন্ডেশনের আওতায় প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা কেন্দ্রে স্থাপন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতায় প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপন প্রকল্প, সমাজসেবা অধিদপ্তরের আওতায় উপকারভোগীকে বয়স্কভাতা, বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলা ভাতা, প্রতিবন্ধী শিক্ষা উপবৃত্তি ভাতা, অসচ্ছল প্রতিবন্ধী ভাতা প্রদানের পরিকল্পনা, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের আওতায় গবাদি পশু ও হাঁস-মুরগি পালনে প্রশিক্ষণ প্রদান, কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের আওতায় কৃষক-কৃষাণীদের প্রশিক্ষণ, কৃষি তথ্য কেন্দ্র স্থাপন, মৌসুমভিত্তিক প্রদর্শনী স্থাপন ও কৃষক পরিবারকে কৃষি উপকরণ সহায়তা কার্ড সরবরাহ ও এলজিইডি’র আওতায় পাকা-কাঁচা সড়ক নির্মাণ কর্ম-পরিকল্পনা চূড়ান্ত করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।