December 6, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

বৈচিত্র্যময় চার সবজি

সুস্বাস্থ্যের জন্য চিকিৎসকদের পরামর্শ হলো- যদি সুস্থ থাকতে চান, বেশি করে সবজি খান। তবে বাস্তবতা হলো- অনেকেরই পছন্দের খাদ্য তালিকায় অনুপস্থিত থাকে সবজি। গরু বা খাসীর মাংস আর বড় মাছ থাকে তাদের নিয়মিত খাবারের তালিকায়। সবজি অপছন্দ করেন যারা নিচের চারটি সবজির উপকারীতা আর আকর্ষণীয় রূপ দেখে তারা অন্তত একবার হলেও পরখ করতে পারেন এদের স্বাদ….

গাঁজর: সবজি হিসেবে গাঁজরকে বলা হয়ে থাকে ‘শক্তিশালী’ খাদ্য উপাদান। এতে রয়েছে বিটা ক্যারোটিন ও ভিটামিন এ। গাঁজর খেলে দৃষ্টিশক্তি বাড়ে এবং ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়। এটি ত্বক সুন্দর রাখতে এবং অ্যান্টিসেপটিক হিসেবেও কাজ করে। গাঁজর হৃৎপিণ্ডের অসুখের ওষুধ হিসেবেও কাজ করে। সপ্তাহে ৬টির বেশি গাঁজর খেয়ে কমানো যায় স্ট্রোকের ঝুঁকিও। সাধারণত লম্বাটে আকৃতিতেই এদের দেখা মিলে। তবে এই গাঁজরটি দেখতে রীতিমতো হাত-পা সম্বলিত নভোচারীর মতো…

বেগুন: অনেকে মনে করেন ‘বেগুন’ মানে যার কোনো গুণ নেই। কিন্তু প্রকৃত সত্যটি হলো- বেগুনে পর্যাপ্ত আয়রনসহ শরীরের জন্য উপকারী অন্যান্য উপাদানও রয়েছে। বেগুন ভাজি, বেগুন ভর্তা, বেগুন পোড়া, এবং বেগুনী বানাতে এর ব্যবহার উল্লেখযোগ্য। বিশেষ করে আমাদের দেশে ইফতারে বেগুনীর জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বী। সাধারণত বেগুনের আকৃতি লম্বা, গোল বা লাম্বা-গোলের মাঝামাঝি হতে দেখা যায়। কখনো কখনো একই বোটায় দুইটি বেগুনের দেখাও মেলে। কিন্তু এই বেগুনটি দেখে বেগুনের প্রচলিত আকৃতির কথা প্রায় ঢাকা পড়ে যায়…

misti-22

মিষ্টি কুমড়া: রঙিন সবজি হিসেবে মিষ্টি কুমড়ার জুড়ি নেই। শিশুদের জন্য পুষ্টিকর বলেও এর চাহিদা অনেক। মিষ্টি কুমড়াতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ। বিটাক্যারোটিন সমৃদ্ধ এই সবজিটি তাই চোখের জন্য খুবই ভালো। বয়সজনিত রোগ বিশেষ করে রেটিনার বিভিন্ন অসুখ প্রতিরোধে মিষ্টি কুমড়া বিশেষ ভূমিকা পালন করে। শুধু চোখের অসুখ নয়, ভিটামিন এ- এর অভাবজনিত অন্যান্য রোগেও মিষ্টি কুমড়া উপকারী। মাত্র চার ইঞ্চি প্রস্থের একফালি মিষ্টি কুমড়ার দাম বাজারে বিক্রি হয় কুড়ি থেকে ত্রিশ টাকায়। গোলাকৃতি, লম্বা, মোটা, ঢাউসসহ নানা আকৃতির মিষ্টি কুমড়ার দেখা মেলে সচরাচর। কিন্তু এই মিষ্টি কুমড়াটি দেখে মনে হয় যেন দিব্যি একটি হাঁস আরাম করে বসে আছে…

ক্যাপসিকাম: সবজি হিসেবে ক্যাপসিকামেরও রয়েছে অনেক গুণ।  সবজি বা সালাদে কিংবা নুডলস পাস্তার সৌন্দর্য বাড়াতে এর জুড়ি নেই। কিন্তু সৌন্দর্য বাড়ানো ছাড়াও ক্যাপসিকামের আছে নানা উপকার। দৈনন্দিন চাহিদার প্রায় তিন গুণ ভিটামিন সি পাওয়া যায় একটি ক্যাপসিকামে। এই সবজিটি বিশ্বের কোথাও চিলি পেপার, কোথাও বেল পেপার নামে পরিচিত। ক্যাপসিকাম অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে এবং হৃদেরাগ, বাত ব্যথা কমাতেও সাহায্য করে। প্রচুর ভিটামিন সি ও এ আছে ক্যাপসিকামে। ক্যাপসিকাম ট্রাইগ্লিসারাইড নামের চর্বি কমাতে সহায়ক। সাধারণত লম্বা, কামরাঙ্গা আকৃতি বা মিস্টি কুমড়া আকৃতিতেই দেখা মেলে ক্যাপসিকামদের। কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গ্রিনেভিল অঞ্চলের খুব পুরনো জাতের বড় সবুজ মরিচ বা ক্যাপসিকামের আকৃতি বেশ মজার। জার্মান ভাষায় এই বড় ক্যাপসিকামকে বলা হয় ‘পাপরিকা’।