June 22, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

মেসি জাদুতে বার্সার আরেকটি শিরোপা

ক্রীড়া ডেস্ক : বার্সেলোনার জার্সি গায়ে লিওনেল মেসির আরও একটি জাদুকরী খেলা দেখল ফুটবল দুনিয়া। মেসির অসাধারণ এই পারফরম্যান্স বার্সেলোনাকে এনে দিয়েছে আরও একটি শিরোপা। বুধবার ভোরে উয়েফা সুপার কাপে তীব্র উত্তেজনার ফাইনালে সেভিয়াকে ৫-৪ গোলে হারিয়েছে তারা।

ম্যাচের ৫২ মিনিটেই ৪-১ গোলে এগিয়ে গিয়েছিল বার্সেলোনা। কিন্তু বড় ব্যবধানে পিছিয়ে থাকা ম্যাচে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় সেভিয়া। সেখান থেকে ম্যাচকে ৪-৪ স্কোরলাইনের বানিয়ে অতিরিক্ত সময়ে নিয়ে যাওয়াটা অসম্ভব কৃতিত্বেরই। তবে অবস্থাদৃষ্টে নিজেদের দুর্ভাগা ভাবতেই পারে সেভিয়া।

কারণ প্রতিপক্ষ দলে যে রয়েছে মেসির মতো অসাধারণ এক খেলোয়াড়। মেসির মতো তারকারাই এসব ম্যাচে ব্যবধানটা গড়ে দেন। শেষ মুহূর্তে ঠিক সেই ঘটনাই ঘটল। অবশ্য ম্যাচের শুরুতে এগিয়ে গিয়েছিল সেভিয়াই। এভার বানেগা এগিয়ে দিয়েছিলেন পিজুয়ানের অধিবাসীদের।

ঠিক সেই অবস্থায় ত্রাণকর্তার ভূমিকায় অবতীর্ণ হলেন মেসি। পরপর দুটি গোল করে বার্সেলোনার আধিপত্য পুনঃপ্রতিষ্ঠা করেন ফুটবলের ক্ষুদে যাদুকর। এরপর লুইস সুয়ারেজ ও রাফিনহা আরও দুটি গোল করলে বার্সেলোনার সহজ জয় একপ্রকার নিশ্চিতই হয়ে উঠেছিল।

তখন কে জানত খেলার আসল উত্তেজনা অপেক্ষা করে আছে ঠিক এর পরই। হোসে আন্তোনিও রেইস, কেভিন গামেইরো ও ইয়েভেন কোনোপ্লিয়াঙ্কার টানা তিনটি গোলে সবাইকে অবাক করে দিয়ে ম্যাচে সমতা আনে সেভিয়া। ৪-১ গোলে এগিয়ে  থেকেও খেলায় সমতা ফিরতে দেখে বার্সা সমর্থকেরা একটু ভয়ই পেয়ে গিয়েছিল।

কিন্তু সংযোজিত সময়ের শেষ দিকের খেলায় মেসির ফ্রি-কিকের পর রিবাউন্ড শটে বার্সেলোনাকে স্মরণীয় একটি জয় উপহার দেন পেদ্রে রদ্রিগেজ। যিনি ইতোমধ্যেই তার শৈশবের ক্লাবকে জানিয়ে দিয়েছেন, আমি ন্যু ক্যাম্প ছাড়তে চাই। তবে কী লা মাসিয়া গ্রাজুয়েট নিজের অস্তিত্বে মিশে থাকা দলকে শেষ উপহারটা দিয়েই দিলেন?