June 23, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

পাবনায় স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ, আটক ১

নিজস্ব প্রতিবেদক : জেলার ভাঙ্গুড়ায় এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় শাহিন (১৮) নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার এ ঘটনা ঘটে।

নির্যাতনের শিকার ছাত্রীটি ভাঙ্গুড়ার একটি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির ছাত্রী।

বুধবার রাতে শাহিনকে আটক করার পর তার জবানবন্দি অনুযায়ী নির্যাতিত ছাত্রীকে উদ্ধার করে পুলিশ। সে এখন ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

পুলিশ সূত্র জানায়, বুধবার সকাল ৯টায় স্কুলে যাবার পথে ভাঙ্গুড়া ইউনিয়ন স্কুল এন্ড কলেজের সামনে থেকে কয়েকজন যুবক ওই ছাত্রীকে একটি সাদা মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায়। এরপর তারা ভাঙ্গুড়া পৌরসভার চৌবাড়িয়া রেলপাড়ার মোজাম্মেল হকের বাড়ির একটি ঘরে আটক রেখে তাকে চেতনানাশক ওষুধ দিয়ে অচেতন করে ফেলে। সেখানে চৌবাড়িয়া রেল পাড়া মহল্লার মুক্তিযোদ্ধা লুৎফর আলীর ছেলে সুজন (২৫), আফসার আলীর ছেলে মিলাল (২৪), হারুণের ছেলে আসাদুল হক (২৫), ইমান আলী কসাইয়ের ছেলে আলম (২২) ও মোজাম্মেল হকের ছেলে শাহিন (১৮) ছাত্রীটির উপর পাশবিক নির্যাতন চালায়।

এসময় ওই যুবকেরা ছাত্রীটির সাথে তাদের কিছু আপত্তিকর ছবি মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ভিডিও ধারণ করে রাখে। তারা বুধবার সন্ধ্যায় ছাত্রীর অভিভাবকের কাছে ফোন করে জানায়, মোটা টাকা চাঁদা না দিলে ভিডিওটি ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়া হবে।

এ ঘটনা পুলিশ জানার পর বুধবার রাত ৮টার দিকে শাহিনকে গ্রেফতার করে। পরে তার জবানবন্দি অনুযায়ী পুলিশ বিকালে ভাঙ্গুড়া পৌরসভার চৌবাড়িয়া রেলপাড়ার মোজাম্মেল হকের বাড়ি থেকে অচেতন অবস্থায় ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে।

ভাঙ্গুড়া থানার ওসি আবু জাফর জানান, মেয়েটির বাবা বাদি হয়ে বুধবার রাত ১১টার দিকে ভাঙ্গুড়া থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। ধর্ষিতাকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে এবং মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য বৃহস্পতিবার সকালে পাবনা সিভিল সার্জন অফিসে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত বাকিদের ধরতে পুলিশ সচেষ্ট রয়েছে।