September 29, 2022

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

ভোটার নিবন্ধনকেন্দ্রের নিরাপত্তায় পুলিশ চেয়ে ইসির চিঠি

নিজস্ব প্রতিবেদক : সারাদেশে শুরু হওয়া ছবিসহ ভোটার তালিকা হালনাগাদের জন্য স্থাপিত নিবন্ধন কেন্দ্রে নিরাপত্তার অভাব রয়েছে বলে মনে করছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এ জন্য পর্যাপ্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী চেয়েছে ইসি।

জানা গেছে, ৫ হাজার ৪০০টি নিবন্ধন কেন্দ্রের নিরাপত্তার জন্য পুলিশ ও আনসার-ভিডিপির সদস্য চেয়ে সারাদেশের পুলিশ সুপার, জেলা কমান্ডেন্ট, আনসার ও ভিডিপিকে চিঠি দিয়েছে ইসি। প্রতিটি কেন্দ্রের নিরাপত্তায় থাকবে ৩ জন পুলিশ ও ২ জন আনসার (১ জন পুরুষ ও ১ জন মহিলা) সদস্য।

ইসির সিনিয়র সহকারী সচিব মাহফুজা খাতুন স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়েছে, গত ১১ আগস্ট থেকে প্রথম পর্যায়ে দেশের বিভিন্ন উপজেলায় তথ্য ফরম পূরণ করা ব্যক্তিদের ল্যাপটপে তথ্য নিবন্ধন শুরু হয়েছে। একই সঙ্গে ভোটারযোগ্য ব্যক্তিদের ছবি তুলে আঙ্গুলের ছাপ ও স্বাক্ষর নেওয়া হচ্ছে। এ কাজটি সুচারুভাবে শেষ করতে নিবন্ধন কেন্দ্রের নিরাপত্তার স্বার্থে প্রতিটি কেন্দ্রের জন্য পুলিশ ও আনসার-ভিডিপি নিয়োগের অনুরোধ জানানো হলো।

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল মোবারক সোমবার দুপুরে বলেন, নিবন্ধন কেন্দ্রে কম্পিউটারসহ বিভিন্ন মূল্যবান সামগ্রী থাকে। এছাড়া ভোটার হতে আসা জনগণের জন্য নিরাপত্তা দরকার। এজন্য আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী চাওয়া হয়েছে।

ইসির কর্মকর্তারা জানান, সারাদেশের ৫১৪টি উপজেলা বা থানাকে তিন স্তরে বিভক্ত করে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। প্রথম পর্যায়ে ১৮৯টি উপজেলায় ইতোমধ্যে ভোটারযোগ্য এবং ভোটারযোগ্য নন (১৫  থেকে ১৭ বছর) নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহের কাজ ৯ আগস্টে শেষ হয়েছে। এসব ব্যক্তির ছবি তুলে ভোটার করার কাজও মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়েছে। ইসির টার্গেট অনুযায়ী প্রতিদিন গড়ে ৬০ হাজার ব্যক্তি ভোটার নিবন্ধিত হবেন।

একইভাবে দ্বিতীয় পর্যায়ে ১৮৪টি এবং শেষ ধাপে ১৪১টি উপজেলায় তথ্য সংগ্রহের কাজ পর্যায়ক্রমে চলবে। আর তথ্য সংগ্রহের পরপরই শুরু হয় ছবি তুলে নিবন্ধন হওয়ার প্রক্রিয়া।