January 29, 2022

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

জন্মদিনে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় সেলিম আল দীনকে স্মরণ

সাভার প্রতিনিধি : রবীন্দ্রোত্তর কালের বাংলা নাটকের অন্যতম পুরোধা নাট্যাচার্য সেলিম আল দীনের ৬৬তম জন্মবার্ষিকী আজ। ১৯৪৯ সালের এই দিনে ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার সেনেরখিল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন বাংলা নাটকের এই প্রবাদ পুরুষ। জন্মদিনে গভীর শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় তাঁর সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর মাধ্যমে তাঁকে স্মরণ করেছেন তাঁর গুণগ্রাহী ও পরিবারের সদস্যরা।

জন্মদিন উপলক্ষে আজ মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের আয়োজনে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। জাতীয় নাট্যশালা থেকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে আসা শোভাযাত্রাটিও এর সঙ্গে একাত্ম হয়ে সেলিম আল দীনের সমাধিস্থলে এসে শেষ হয়।

শোভাযাত্রা শেষে সেলিম আল দীনের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ফারজানা ইসলাম, নাট্যগুরুর সহধর্মিণী বেগমজাদী মেহেরুন্নেসা সেলিম, নাট্য ব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু, নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের ছাত্র-শিক্ষক, জাবি ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র, বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটার, ঢাকা থিয়েটার, সেলিম আল দীন ফাউন্ডেশন, জাহাঙ্গীরনগর সাংস্কৃতিক জোটসহ বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংগঠন।

এ সময়  জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য  ফারজানা ইসলাম বলেন, বাংলা নাটকে সেলিম আল দীনের অসামান্য অবদান রয়েছে। সব সময় তাঁর এ অবদানকে সম্মান জানাতে চেষ্টা করা হবে।

সেলিম আল দীনের সহধর্মিণী মেহেরুন্নেসা সেলিম সাংবাদিকদের বলেন, আজ আমরা যে এ জন্মদিন পালন করছি, তার প্রধান কারণ সেলিম আল দীনের লেখালেখি। আমি তাঁর অপ্রকাশিত লেখাগুলো প্রকাশ করার চেষ্টা করছি। তিনি আরো জানান, অনেক চ্যানেলে সেলিম আল দীনের নাটকগুলো প্রচারের আগে তাঁর স্ক্রিপ্ট জমা দেওয়া ছিল। সেসব চ্যানেল কর্তৃপক্ষের কাছে ওই সব স্ক্রিপ্ট ফেরত চাওয়া হয়েছে। কেউ কেউ সাড়া দিয়েছে, আবার অনেকে সাড়া দিচ্ছে না। তবে যত দিন বেঁচে আছেন সেলিম আল দীনের লেখাগুলো প্রকাশে নিরলসভাবে কাজ কাজ করে যাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য আবুল হোসেন, কোষাধ্যক্ষ আবুল খায়ের, রেজিস্ট্রার আবু বকর সিদ্দিক, কলা ও মানবিকী অনুষদের ডিন সৈয়দ মোহাম্মদ কামরুল আহছান, অধ্যাপক আফসার আহমদসহ অনেক শিক্ষক-শিক্ষার্থী।

নাট্যাচার্যের স্মরণে আজ দুপুর সাড়ে ১২টায় সেলিম আল দীনকে নিয়ে নির্মিত তথ্যচিত্র ‘আদিমাতার বরপুত্র ,নাট্য বিজ্ঞানী সেলিম আল দীন’ প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শিত হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগে। সন্ধ্যা ৭টায় অধ্যাপক আফসার আহমদের নির্দেশনা ও বিভাগীয় প্রযোজনায় নাটক ‘ঊষা উৎসব’ মঞ্চস্থ হয়।

এ ছাড়া  ১৯ আগস্ট সন্ধ্যা ৭টায় সেলিম আল দীন রচিত ও রেজা মোহাম্মদ আরিফের নির্দেশনায় ‘স্বর্ণ বোয়াল’ নাটকটি মঞ্চায়ন করা হবে । নাটকটি উৎসবের তৃতীয় দিন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির পরীক্ষণ থিয়েটার হলেও মঞ্চায়ন করা হবে।

১৯৬৪ সালে মেট্রিক ও ১৯৬৬ সালে ইন্টারমিডিয়েট পাসের পর ১৯৬৭ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগে ভর্তি হন সেলিম আল দীন। দ্বিতীয় বর্ষের পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে চলে যান তিনি। পরে টাঙ্গাইলের সাদত কলেজ থেকে স্নাতক (সম্মান) শেষ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন তিনি। পরবর্তী সময়ে ১৯৯৫ সালে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে প্রভাষক হিসেবে যোগ দেন। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন তিনি। ২০০৮ সালের ১৪ জানুয়ারি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করার পূর্ব পর্যন্ত এই বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত ছিলেন তিনি।