July 1, 2022

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

ঢাকায় পাক হাইকমিশনের কর্মী আটক, ৭ ঘণ্টা পর মুক্ত

কূটনৈতিক প্রতিবেদক: রাজধানীর গুলশান থেকে পাকিস্তান হাই কমিশনের এক কর্মীকে আটকের পর কর্মকর্তাদের জিম্মায় ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ।

পাকিস্তান হাইকমিশনের ভাষ্য, মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে গুলশানে তার বাসার কাছ থেকে আটক করা হয় তাকে। এর সাত ঘণ্টা পর হাইকমিশনের জিম্মায় তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।”

তার কাছে অবৈধভাবে রাখা ভারতীয় রুপি পাওয়া গিয়েছিল বলে দাবি করেছে পুলিশ। তবে পাকিস্তান হাইকমিশন তা প্রত্যাখ্যান করে এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছে। হাইকমিশন বলছে, “আবরার আহমেদ খান নামে ওই কর্মকর্তাকে ধরে তার কাছে পাঁচ কোটি টাকা চেয়েছিল গোয়েন্দা পুলিশ। তা না দিলে ‘ক্রসফায়ারের’ ভয় দেখানো হয়।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কর্মকর্তারা ওই কর্মকর্তাকে ভয় দেখানো কিংবা হুমকি দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

ঢাকা মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার মো. মারুফ হোসেন সরদার বলেন, “গতিবিধি সন্দেহজনক হওয়ায় ওই ব্যক্তিকে আটক করে থানায় নেওয়া হয়েছিল। পরে তার পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়।”

আবরার খান ১০ বছর ধরে ঢাকায় পাকিস্তান হাইকমিশনের প্রেস সেকশনে অ্যাসিটেন্ট প্রাইভেট সেক্রেটারি
হিসেবে কাজ করছেন বলে হাইকমিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। তার বাসা গুলশান ২ নম্বর সেকশনে।

জঙ্গি অর্থায়নে জড়িত সন্দেহে গত বছরের জানুয়ারিতে পাকিস্তান দূতাবাসের কর্মকর্তা মাযহার খানকে বাংলাদেশ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছিল। জঙ্গি ‘যোগসাজশের’ অভিযোগ ওঠার পর ঢাকায় পাকিস্তান হাইকমিশনের কূটনীতিক ফারিনা
আরশাদকে গত বছরের শেষ দিকে তার দেশে ফেরত পাঠানো হয়।