July 1, 2022

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত আ. লীগের ২৫ প্রার্থী

বিশেষ প্রতিনিধি : প্রথম ধাপে (২২ মার্চ) অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে ৭৩৮টি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে ৭০টিকে বিএনপির কোনও প্রার্থী নেই। এদিকে, আওয়ামী লীগ ৩টি ইউপিতে দুজন করে প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এছাড়া, ২৫টিতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশন (ইসি) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
আগামী ২২ মার্চ অনুষ্ঠিতব্য ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩ হাজার ৫৬৮জন মনোনয়ন দাখিল করেছেন। এর মধ্যে ১৬টি রাজনৈতিক দলের ১৯শ প্রার্থী রয়েছেন। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী আছে এক হাজার ৬৬৮জন।
নির্বাচন কমিশনের (ইসি) তথ্য অনুযায়ী, নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ৭৪১টি, বিএনপি ৬৬৮টি, জাতীয় পার্টি (জাপা) ১৪৮টি, জাতীয় পার্টি (জেপি) ২০টি, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ২৪৫টি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) ৩০টি, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি ২৪টি, বিকল্পধারা বাংলাদেশ ৫টি, বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ) ৭টি, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি ৪টি, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ২টি, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ) ২টি, বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি), কল্যাণ পার্টি ও জাকের পার্টি একজন করে প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছে। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য ২৪টি রাজনৈতিক দল কমিশনে প্রার্থী প্রত্যয়নের ক্ষমতাপ্রাপ্ত ব্যক্তির নাম ও নমুনা স্বাক্ষর জমা দিয়েছিলেন। এর মধ্যে ৮টি রাজনৈতিক দল কোনও প্রার্থী দেয়নি। দলগুলো হলো— লিবাবেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি), বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট, ইসলামী ঐক্যজোট, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি), খেলাফত মজলিশ, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি ও কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ।

 বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত আওয়ামী লীগের ২৫ প্রার্থী

বাগেরহাট সদর উপজেলার বেমরতা, বিষ্ণুপুর, ডেমা, গোটাপাড়া, যাত্রাপুর, রামপাল উপজেলার মালিকেরবেড়, চিতলমারী উপজেলার চরবানিয়ারী, বড়বাড়িয়া, হিজলা, সন্তোষপুর, কলাতলা, ফকিরহাট উপজেলার ফকিরহাট, মুলঘর, মোল্লাহাট উপজেলার আটজুড়ি, কোদালিয়া, কুলিয়া, উদয়পুর, মংলা উপজেলার সোনাইলতলা, মোড়েলগঞ্জ উপজেলার পঞ্চকরণ, বরগুনা সদর উপজেলার বুড়িরচর, ভোলা সদর উপজেলার দক্ষিণ দিঘলদি, ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার নাচনমইল, মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার কুতুবপুর, মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার জৈনসার ও সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার সোনাবাড়িয়া।

বিএনপির প্রার্থী নেই যে সব ইউপি

আওয়ামী লীগের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ২৫টি ইউপি ছাড়াও আরও ৪৫টিতে বিএনপি কোনও প্রার্থী দিতে পারেনি। এগুলো হচ্ছে কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার বড়শালঘর, খুলনার পাইকগাছা উপজেলার লস্কর, দাকোপ উপজেলার কৈলাসগঞ্জ, কামারখোলা, তিলডাংগা, তেরখাদা উপজেলার তেরখাদা, সাচিয়াদহ, ছাগলাদহ, গোপালগঞ্জের টুংগীপাড়া উপজেলার বর্নি, ডুমুরিয়া, গোপালপুর, কুশলি, পাটগাতি, ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার কুলকাঠি, যশোরের মনিরামপুর উপজেলার হরিহরনগর, ঢাকা দোহারের নয়াবাড়ি, নেত্রকোনার খালিয়াজুরির উপজেলার গাজিপুর, নোয়াখালী হাতিয়া উপজেলার চরইশ্বর, চরকিং, পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার তেলিখালী, বাগেরহাটের মোংলা উপজেলার বুড়িরডাংগা, রামপাল উপজেলার গৌরন্বা, রাজনগর, চিতলমারী উপজেলার চিতলমারী, শিবপুর, ফকিরহাট উপজেলার নলধা-মৌভোগ, মোল্লাহাট উপজেলার চুনখোলা, গাওলা, বাগেরহাট সদর উপজেলার কাড়াপাড়া, কচুয়া উপজেলার কচুয়া, ধোপাখালী, গজালিয়া, রাড়ীপাড়া, বরগুনা সদর উপজেলার বদরখালী, কেউড়াবুনিয়া, আমতলী উপজেলার কুকুয়া, লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলার চরপোড়াগাছা, শেরপুরের নলিতাবাড়িয়া উপজেলার বাঘবেড়, সাতক্ষীরা দেবহাটা উপজেলার কুলিয়া, কালিগঞ্জ উপজেলার চাম্পাফুল, ধলবাড়িয়া, কৃষ্ণনগর, সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বৈকারী ও কলারোয়া উপজেলার দেয়াড়া, কেরালকাতা, যুগীখালী।

তিনটিতে আওয়ামী লীগের একাধিক প্রার্থী

৭৩৮টি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে ৩টিতে আওয়ামী লীগের দুজন করে প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছে। এগুলো হলো খুলনার দিললিয়ার গোগীপল, কক্সবাজারের মহেশখালীর কালারমারচ ও কুষ্টিয়ার মিরপুরের আমবাড়িয়া।