September 30, 2022

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

হাইকোর্টের নতুন বেঞ্চে তনু হত্যার রিট

আদালত প্রতিবেদক : কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী সোহাগী জাহান তনু হত্যার বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে করা রিট সোমবার হাইকোর্টের একটি বেঞ্চের কার্যতালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়। মঙ্গলবার সেটি হাইকোর্টের আরেকটি বেঞ্চের কার্যতালিকায় এসেছে। তবে আগের বেঞ্চ থেকে মামলার নথিপত্র না আসায় এদিন শুনানি হয়নি। বুধবার ওই বেঞ্চে মামলাটি শুনানি হতে পারে বলে জানিয়েছেন রিটকারী আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ।

বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি মো. সেলিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের অবকাশকালীন বেঞ্চে মঙ্গলবার রিট আবেদনটি শুনানির জন্য কার্যতালিকায় ৫৩ নম্বরে ছিল। তবে শুনানি হয়নি।

এদিন শুনানি না হওয়ার কারণ সম্পর্কে রিটকারী আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ জানান, শুনানির জন্য তনু হত্যার বিষয়ে করা রিটটি আজ (মঙ্গলবার) কার্যতালিকায় ছিল। কিন্তু বিচারপতি নাইমা হায়দারের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ থেকে এই মামলার নথিপত্র নতুন বেঞ্চে না আসায় আজ শুনানি হয়নি। তবে আগামীকাল রিট আবেদনটির ওপর শুনানি হতে পারে।

এর আগে সোমবার বিচারপতি নাইমা হায়দারের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ তনু হত্যার বিষয়ে দায়ের করা মামলার তদন্ত চলমান রয়েছে যুক্তি দেখিয়ে আবেদনটি কার্যতালিকা থেকে বাদ দেন। পরে আবেদনটি রিটকারী আইনজীবী বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চে নিয়ে যান।

প্রসঙ্গত, গত ৪ এপ্রিল তনু হত্যার বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ। রিট আবেদনে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তনু হত্যাকারীদের গ্রেফতারের নির্দেশনা চাওয়া হয়েছিল। হত্যাকারীদের গ্রেফতারের সরকারের নিষ্ক্রিয়তাকে অবৈধ ঘোষণা করা হবে না এই মর্মে রুল জারির আর্জি জানানোর পাশাপাশি আবেদনে তনুর পরিবারের জন্য ৩০ লাখ টাকার ক্ষতিপূরণও চাওয়া হয়।

গত ২০ মার্চ রাতে কুমিল্লা সেনানিবাসের বাসা থেকে ২০০ গজ দূরে টিউশনি শেষে ফেরার পথে নিখোঁজ হন তনু। রাতেই অলিপুরের একটি ঝোঁপের মধ্যে তনুর লাশ পাওয়া যায়। পাশেই ছিল তার জুতা, ছেঁড়া চুল, ছেঁড়া ওড়না। তনু কুমিল্লা ময়নামতি সেনানিবাসের ভেতরে অলিপুর এলাকায় সপরিবারে থাকতেন। তার বাবা ইয়ার হোসেন ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী।