September 18, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

বেনাপোল বন্দরে আগুন

যশোর প্রতিনিধি : বেনাপোল বন্দর থানাসহ বন্দরের পণ্য গুদামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুন ছড়িয়ে পড়েছে পোর্ট থানা ভবনসহ বন্দরের অন্যান্য পণ্য গুদামেও। এমনকি গুদাম ও থানা ছাড়িয়ে আগুন ছড়িয়েছে রাস্তায়ও।

রবিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে বন্দরের ২৩ নম্বর পণ্য গুদাম থেকে এ অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। সকাল সোয়া ৮টা থেকে ফায়ার সার্ভিসের ৮টি ইউনিটের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে যাচ্ছে। এখন পর্যন্ত পরোপুরি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসেনি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভোরে ২৩ নম্বর গুদামে ধোঁয়া উঠতে দেখা যায়। এরপর কিছুক্ষণের মধ্যেই দাউদাউ করে জ্বলে ওঠে আগুন। এক পর্যায়ে তা বন্দরের পাশের পণ্য গুদাম ও পণ্যাগারের পাশে পোর্ট থানাভবনেও ছড়িয়ে পড়ে। আগুন ছড়িয়ে পড়ে রাস্তায়ও। ফলে রাস্তায় মালামাল লোডিংয়ের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে থাকা একটি বাংলাদেশি ট্রাক ও একটি ভারতীয় ট্রাকে আগুন ধরে যায়।

সোয়া ৮টার দিকে বেনাপোল স্থলবন্দরের পরিচালক নিতাই চন্দ্র সেন  জানান, আগুন লাগার পরপরই বন্দর ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট কাজ শুরু করে। এছাড়া যশোর থেকে আসা আরও ৬টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছে। এই মুহূর্তে আগুন প্রায় ৮০ ভাগ নিয়ন্ত্রণে। এখন আর ছড়ানোর কোনও আশঙ্কা নেই।বন্দরের আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চলছে

তবে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, বন্দর ফায়ার সার্ভিসের লোকবল ও সরঞ্জাম সংকটের কারণে আগুন তাৎক্ষণিকভাবে নেভানো যায়নি। যে কারণে পণ্য গুদাম ছাড়িয়ে আগুন ধরেছে পোর্ট থানাভবন এবং রাস্তায়ও। প্রায় ২ ঘণ্টা পর যশোর থেকে ৬টি ইউনিট আগুন নেভাতে ছুটে এসেছে। কিন্তু ততক্ষণে প্রায় সবকিছু পুড়ে গেছে।বন্দরে আগুন

স্থানীয়রা বলেন, দেশের প্রধান এ স্থলবন্দরে এর আগেও ৫-৬ বার আগুন লেগেছিল। বন্দর ফায়ার সার্ভিসে আগুন নেভানোর ব্যবস্থা পর্যাপ্ত নেই বলে সবসময়ই তা ছড়িয়ে পড়ে। এবার তা আরও ভয়াবহ আকারে ছড়ালো।