September 18, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

মোহাম্মদপুর থানার ওসির বিরুদ্ধে ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে চাঁদাবাজির মামলা

আদালত প্রতিবেদক : বাড়ি দখল এবং চাঁদাবাজির অভিযোগে মোহাম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবং উপ-পরিদর্শকসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে ঢাকার আদালতে মামলা দায়ের করেছেন এক আইনজীবী।
রোববার ঢাকা আইনজীবী সমিতির সদস্য ও আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালের কৌঁসুলি অ্যাডভোকেট কুতুব উদ্দিন আহমেদ বাদী হয়ে আসামিদের বিরুদ্ধে এই মামলা দায়ের করেন।
পরে ঢাকা মহানগর হাকিম মো. খুরশীদ আলম বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ শেষে আদেশ পরে দেবেন বলে জানান। বাদী নিজেই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
আসামিরা হলেন, মোহাম্মদপুর থানার ওসি মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন মীর, উপ-পরিদর্শক মো. রাজীব, সহকারী উপ-পরিদর্শক মো. খোরশেদ, নূর আলী রিয়েল এস্টেটের কর্মকর্তা মো. মামুন হোসেন এবং মো. সোহেল।
মামলার নথি সূত্রে জানা গেছে, গত ৯ অক্টোবর বাদী ভাড়া বাসা থেকে ৩৩৯/এ জাফরাবাদ, শংকরে নিজ বাড়িতে মালামাল স্থানান্তর করছিলেন। এ সময় আসামিরা বাসায় প্রবেশে বাধা দেয়। পরবর্তীতে আসামিরা বাদীকে বাসার নিচ তলার গ্যারেজে ডেকে ৪৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় রাজীব এবং খোরশেদ বাদীকে কলার ধরে মারধর করে এবং থানায় নিয়ে যেতে চায়। এ সময় তারা হুমকি দিয়ে বলে, তোর বিরুদ্ধে মামলা আছে, মামলায় রিমান্ডে নিয়ে ক্রসফায়ারে দেওয়া হবে। বাদী নিজেকে আইনজীবী ও আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ ট্রাইবুনালের আইনজীবী হিসেবে পরিচয় দেওয়ার পরও ওসি মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন তাকে লাঞ্ছিত করে। পরে বাদী মামলার সাক্ষী মইনুদ্দিনের সহায়তায় ২ লাখ টাকা সংগ্রহ করে ওসিকে দেন। এ সময় আসামি রাজীব ও খোরশেদ সাদা কাগজে বাদীর সই নিয়ে তাকে হুমকি দিয়ে চলে যায়।
মামলায় সাক্ষী করা হয়েছে ৬ জনকে।