June 25, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

আশুলিয়ায় গোপন বৈঠকের সময় জামায়াতের ৬ নেতাকর্মী আটক

মোঃ খোরশেদ আলম, আশুলিয়াঃ
আশুলিয়ায় গোপন বৈঠকের সময় জামায়েতের ৬ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় তাদের কাছ থেকে সদস্য হওয়ার ফরমসহ বিভিন্ন লিপলেট উদ্ধার করা হয়। শুক্রবার দুপুরে আশুলিয়ার পলাশবাড়ির বটতলায় এলাকার হাজী মতিনের বাসায় গোপন বৈঠকের সময় তাদের আটক করা হয়।
আটককৃতরা হলো- আশুলিয়ার কাশিপুর এলাকার নিয়াজ উদ্দিনের ছেলে এখলাস উদ্দিন। নোয়াখালীর চাটখিল থানার ধর্মপুর গ্রামের মনসুর আহমেদের ছেলে সামসুল ইসলাম। নওগাঁর পল­ীতলা থানার লালপুর গ্রামের আবদুল হালিমের ছেলে তসলিম আহমেদ। দিনাজপুরের পার্বতীপুর থানার শিববাড়ি গ্রামের মৃত কেরামত আলীর ছেলের আবুল হাসেম। নাটোর জেলার সিংড়ার থানার বনভরাইল গ্রামের সামুল ইসলামের ছেলে ওমর ফারুক ও আশুলিয়ার পলাশবাড়ী এলাকার বাড়ির মালিক কুমিল্লার লাকসাম থানার বাউফোর গ্রামের আলতাফে হোসেন মাষ্টারের ছেলে আবদুল মতিন।
আশুলিয়ায় শাখার পুলিশের নগর বিশেষ শাখা (সিটিএসবি)সংস্থার সূত্রে জানা যায়, পলাশবাড়ী একটি বাড়িতে মাঝে মধ্যে পোপন বৈঠক করে আসছিলো কয়েকজন ব্যক্তি। সন্দেহ হলে বিষয়টি আমাদের নজরধারী শুরু করি। গ্রায় মাস খানেক এভাবে চলতে থাকে। পরে শুক্রবার সকালে ৬ জন লোক ভিতরে যায় ও দীর্ঘ সময় পর বাড়ি গেট খুলতে বললেও তারা খুলছিলো না। পরে পুলিশের সহায়তায় খুলে বৈঠক থেকে জামায়াতের ৬ জনকে আটক করা হয়। তাদের মধ্যে এখলাস উদ্দিনের নাশকতার কয়েকটি মামলা রয়েছে। তার পদপদবীর কথা না বললেও জামায়াতের রোকন হিসেবে নিজেকে পরিচয় দেয়।
এ বিষয়ে আশুলিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) খন্দকার আতাউর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, গোয়ান্দা তথ্যের ভিত্তিতে পলাশবাড়ি এলাকায় হাজী মতিনের বাড়িতে জামায়াতের সদস্য সংগ্রহ ও নাশকতার পরিকল্পনার গোপন বৈঠকের খবর ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে জামায়েতের ৬ জনকে আটক করা হয়েছে। এসময় তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন লিপলেট পাওয়া যায়। প্রাথমিকভাবে তথ্য পাওয়া যায়, তারা প্রায় সময় এই বাড়িটি গোপন বৈঠক করে আসছিলো। তাদের হাতে নাতে ধরা জন্য আটক করা জন্য পরিকল্পনা করে আসছিলো পুলিশ। তারি ধারাবাহিকতা গোপন তথ্যের ভিত্তিতে এই অভিযান পরিচালিত হয়। এঘটনায় আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।