October 24, 2021

দৈনিক প্রথম কথা

বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক

অভিনেতা নীরজ ভোরা আর নেই

ডেস্ক: বলিউডের জনপ্রিয় পরিচালক, অভিনেতা নীরজ ভোরা আর নেই। ‘ফির হেরা ফেরি’ খ্যাত এ গুণী নির্মাতা দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার সকালে পাড়ি জমান না ফেরার দেশে। মৃত্যুকালে তারবয়স হয়েছিল ৫৪ বছর।

তার এই অকাল মৃত্যুতে বলিউড পাড়ায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া। খবর শুনে অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী হাসপাতালে ছুটে যান।

জানা যায়, হার্ট অ্যাটাকের পর ব্রেন স্ট্রোক করেন তিনি। ফলে দীর্ঘদিন কোমায় ছিলেন বলিউডের এই বিখ্যাত অভিনেতা-পরিচালক। তবে তার শারীরিক অবস্থার খুব একটা উন্নতি হয়নি। বারেবারে হাসপাতাল থেকে বাসায় নেওয়া হয় তাকে। মূলত পরিবারে কেউ না থাকায় ইন্ডাস্ট্রির কাছের বন্ধু প্রযোজক ফিরোজ নাদিয়াওয়ালার বাড়িই ছিল তার ঠিকানা।

গত বছর নীরজ ভোরার স্ত্রীর মৃত্যু হয়। তাদের কোনো সন্তানও নেই।

‘কোম্পানি’, ‘মন’, ‘রঙ্গিলা’, ‘সত্য’, ‘পুকার’র মতো অসংখ্য ছবিতে অভিনয় করেছেন নীরজ ভোরা। শুধু তাই নয়, ‘হেরা ফেরি’, ‘রঙ্গিলা’, ‘চোরি চোরি চুপকে চুপকে’র চিত্রনাট্য এবং ‘ফির হেরা ফেরি’র মতো ছবির পরিচালনাও করেছেন তিনি।

অসুস্থতার কারণে ‘হেরা ফেরি থ্রি’র কাজ বন্ধ ছিল। অনেকে মনে করছেন, ছবিটি পুরোপুরি স্থগিতই হয়ে গেলো।

গ্ল্যামারের ছটা শুধু তারকা মহিমাই সামনে তুলে ধরে। কিন্তু স্টার তকমার বাইরেও এমন কিছু মানুষ থাকেন, শুধুমাত্র সিনেমাকে ভালবেসে যারা কাজ করে যান। এমনই একজন ছিলেন নীরজ। অভিনয় ছিল তার রক্তে। সিনেমায় আসার আগেও গুজরাটি মঞ্চের পরিচিত মুখ ছিলেন। ৮৪ সালে কেতন মেহতার ‘হোলি’র মাধ্যমে বলিউড যাত্রা শুরু হয়। ঝুলিতে রয়েছে ‘রঙ্গীলা’, ‘সত্যা’, ‘কোম্পানি’, ‘বাদশা’, ‘বোল বচ্চন’-এর মতো সিনেমা। শুধু অভিনয়েই সীমাবদ্ধ থাকেনি তার প্রতিভা। ২০০০ সালে সুপারহিট ‘হেরা ফেরি’র চিত্রনাট্য ইনিই লিখেছিলেন। ছয় বছর বাদে ‘ফির হেরা ফেরি’ পরিচালনাও করেছিলেন।

সেই ছবিরই তৃতীয় সংস্করণ ‘হেরা ফেরি ৩’-এর কাজ শুরু করেছিলেন সবে। কিন্তু তার মধ্যেই ঘটে যায় বিপত্তি। আচমকা হৃদরোগে আক্রান্ত হন ৫৪ বছরের অভিনেতা-পরিচালক। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই হানা দেয় ব্রেন স্ট্রোকও। দু’টি ধাক্কা সামলাতে পারেনি নীরজের শরীর। কোমায় চলে যান অভিনেতা। ২০১৬ সালের ১৯ অক্টোবরের পর থেকে তার শরীরে আর কোনও সাড় ছিল না।

প্রথমে মুম্বইয়ের AIIMS-এ ভর্তি ছিলেন অভিনেতা-পরিচালক। পরে আরও ভাল চিকিৎসার জন্য জুহুতে স্থানান্তরিত করা হয়। চার দিন আগেই তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। ভেন্টিলেশনে দিতে হয় নীরজকে। বৃহস্পতিবার ভোর ৩টার দিকে জুহুর এক বেসরকারি হাসপাতালে মাল্টি অরগ্যান ফেলিওর হয় গুজরাটি মঞ্চের অন্যতম কারিগরের। বিকেল ৩টার দিকে নাগাদ সান্তাক্রুজ পশ্চিমে হবে শেষকৃত্য। কিছুদিন আগেই প্রয়াত হন বর্ষীয়ান অভিনেতা শশী কাপুর। বছর শেষে ফের একটি মৃত্যুর খবরে শোকের ছায়া বলিউডের শিল্পী মহলে।